কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে ব্রিটিশ মন্ত্রী মার্ক ফিল্ড

received_1922732241126091.jpeg

শহিদুল ইসলাম,উখিয়া(৩০ জুন) :: কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং পরিদর্শনকালে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মার্ক ফিল্ড বলেছেন, রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে যুক্তরাজ্য সরকারও মিয়ানমারের উপর চাপ দিচ্ছে। যুক্তরাজ্য সরকার রোহিঙ্গাদের জন্য জোরালো ভূমিকা রাখছে।

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে তাঁর পরিবারও শরণার্থী ছিল বলে সে রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশনা উপলব্ধি করতে পারে উল্লেখ করে মার্ক ফিল্ড বলেন, রোহিঙ্গাদের মর্যাদা ও মানবাধিকার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদেরকে আশ্রয় দিয়ে মানবিকতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

মার্ক ফিল্ড বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যু এখন আন্তর্জাতিক। তাই আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সঙ্গে একাত্ম হয়ে বৃটিশ সরকার রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে কাজ করছে। মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগে নয়, শান্তিপূর্ণ আলোচনায় এর সমাধান চাই আমরা। একটু সময়ক্ষেপণ হলেও, আন্তরিকভাবে নাগরিক সম্মান দিয়েই যেন প্রত্যাবাসন হয় এটিই কাম্য।

তিনি আরও বলেন, বর্ষা মৌসুমে দূর্যোগকালীন সময়ে রোহিঙ্গাদের কিভাবে সুরক্ষা দেয়া যায় সেদিকে আমাদের এখন বেশি মনোযোগ দিতে হবে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকবে যুক্তরাজ্য।

৩০ জুন দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়া কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে যান প্রতিমন্ত্রী মার্ক ফিল্ড। সেখানে রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজ-খবর নেন। এসময় তিনি রোহিঙ্গা নারীদের মুখে মিয়ানমারে নির্যাতনের কথাও শোনেন। সেখানে কয়েকটি ত্রাণকেন্দ্র পরিদর্শন করেন তিনি। পরে সেখান থেকে মধুরছড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ত্রাণকেন্দ্র ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন লিঙ্গ সমতা বিষয়ক বিশেষ দূত জোয়ানা রেপার।

প্রসঙ্গত ২০১৭ সালে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের ফলে রোহিঙ্গারা দেশ ছাড়া শুরু করলে সেসময় প্রথম কোনো বিদেশি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হিসেবে মার্ক ফিল্ড ওই রাজ্যটি পরির্দশন করেন। শুক্রবার তিন দিনের সফরে তিনি বাংলাদেশে আসেন। শনিবার বেলা ১১টার দিকে একটি বেসরকারি বিমানযোগে কক্সবাজার বিমান বন্দরে পৌঁছেন তিনি।

Share this post

PinIt
scroll to top