izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

কক্সবাজার সরকারি কলেজের ছাত্র তানভীরের খুনীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

20180709_205240.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি(৯ জুলাই) :: কক্সবাজার সরকারি কলেজের মেধাবী ছাত্র শহীদ এ.এইচ.এম তানভীরকে বিগত ২৯/০৬/২০১৮ইং তারিখ রোজ শুক্রবার দুপুর ২ ঘটিকার সময় দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়া এলাকায় পরিকল্পিতভাবে চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের নির্মম আঘাতে হত্যা করা হয়।

স্থানীয় ইয়াবা ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে তার দৃঢ় অবস্থানের কারণে পূর্ব থেকেই খুনীচক্র ইয়াবা ব্যবসায়ীরা তানভীরের উপর ক্ষুদ্ধ ছিল। সামাজিক উন্নয়ন, সমাজকে মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত, শিক্ষিত ও সুন্দর সমাজ গঠনের কাজ করায় তাকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে।

ঘটনার দিনই কক্সবাজার সদর মডেল থানায় ১২জনকে আসামী করে একটি নিয়মিত হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ প্রশাসন অত্যন্ত দ্রুত ও দক্ষতার সাথে হত্যা মামলার ২নং আসামী এবং ১০নং আসামীকে গ্রেফতার করলেও আজ পর্যন্ত বাকী আসামীদের গ্রেফতারের কোনো নিশানা দেখা যাচ্ছে না। প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। প্রশাসনের নিশ্চুপ ভূমিকা সকলের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ।

খুনীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবীতে গত সোমবার দুপুর ১২ ঘটিকার সময় কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে হাজারো জনতার উপস্থিতিতে এক বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন কর্মসূচীতে স্বতস্ফূর্তভাবে কক্সবাজারের সকল দলের রাজনৈতিক নেতা, আইনজীবি, সাংবাদিক কর্মী, শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কক্সবাজার পৌর শাখার সভাপতি নজিবুল ইসলাম, কক্সবাজার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থী জাফর আলম, কক্সবাজার বার এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. মোস্তাক আহমদ, কৃষি বিজ্ঞানী কায়সার উদ্দিন আহমেদ, মেয়র সরওয়ার কামাল, শহীদ তানভীরের বড় ভাই আবুহেনা মোঃ মহসিন, অধ্যাপক মোহাম্মদ শওকত আলী, বাংলাদেশ লয়ার্স এন্ড ল ষ্টুডেন্ট এসোসিয়েশন কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি আরিফুল্লাহ কাউছার নূরী, কক্সবাজার আইন কলেজের শিক্ষার্থী মিজানুল আলম প্রমুখ।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম বলেন- তানভীর শুধু আমাদের নয়, সে একজন দেশের সম্পদ ছিলো। তিনি তানভীরের খুনীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবী জানান। শহীদ তানভীর হত্যা নিয়ে রাজনীতি না করার জন্য গুরুত্বারোপ করেন। পরিশেষে তিনি শহীদ এ.এইচ.এম তানভীরের আতœার মাগফেরাতের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া কামনা করেন।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তারা শহীদ এ.এইচ.এম তানভীরের হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও জোরালো ভাবে ফাঁসির দাবী জানান। বক্তাদের সম্মিলিত কন্ঠে দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ায় অবিলম্বে “পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপন” করার জোর দাবী জানানো হয়। অতি শীঘ্রই শহীদ এ.এইচ.এম তানভীরের হত্যাকারীদের গ্রেফতার করা না হলে আরো কঠিন কর্মসূচী পালনের হুশিয়ারী প্রদান করা হয়। মানববন্ধনে সর্বস্তরের জনসাধারণের সাথে কয়েকটি সামাজিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।

কক্সবাজার সরকারি কলেজ, প্রতিভা কক্স কোচিং সেন্টার, বাংলাদেশ লয়ার্স এন্ড ল ষ্টুডেন্ট এসোসিয়েশন কক্সবাজার জেলা শাখা, শহীদ এ.এইচ.এম তানভীর স্মৃতি সংসদ, পিটি স্কুল কাঁচা বাজার পরিচালনা কমিটি, বৃহত্তর রুমালিয়ারছড়া ছাত্র সমাজ ও কক্সবাজার আইডিয়াল মাদ্রাসা।

মানববন্ধন শেষে মাননীয় জেলা প্রশাসক বরাবর “খুনীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবী” জানিয়ে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri