টেকনাফে ভারীবর্ষনে অর্ধশত রোহিঙ্গা বসতি ধ্বসে গেছে : আহত-১

Teknaf-Pic-B-25-07-18.jpg

হুমায়ূন রশিদ,টেকনাফ(২৫ জুলাই) :: টেকনাফে কয়েকদিনের টানা ভারীবর্ষণে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসরত বিভিন্ন ক্যাম্পের অর্ধশত রোহিঙ্গা বসতি ধ্বসে গেছে। প্রাথমিকভাবে কয়েকজন আহত হলেও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

উপজেলা প্রশাসন ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হতে সরে যেতে প্রচারনা চালালেও বিরামহীন বৃষ্টিতে লোকজন সরতে পারছেনা। আবার স্থানীয়দের অনেকে কর্ণপাত করছেনা।

জানা যায়, ২৫ জুলাই দুপুর পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা জাদিমোরার শালবন এলাকায় ১৫-২০টি, অনিবন্ধিত লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন চাষী জমিতে আশ্রয় নেওয়া নতুন ৩৫/৪০টি রোহিঙ্গা বসতি পানিতে জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে এবং উনছিপ্রাং পুঁটিবনিয়া ক্যাম্পে ২৫-৩০টি ঘর ধ্বসে গেছে।

শালবনে পাহাড় ধ্বসের ঘটনায় আহত মোঃ কাশেম (১৩) কে উদ্ধার করে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করা হয়েছে।

এদিকে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় ক্যাম্পে কর্মরত এনজিও সংস্থার কর্মীরা পাহাড়ের পাদদেশ বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে যেতে মাইকিং করলেও অনেকে বিরামহীন বৃষ্টির কারণে যেতে পারছেনা বলে জানায়।

এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের পাহাড়ী পাদদেশ এবং টিলায় বসবাসকারীদের পাহাড় ধ্বসে প্রাণহানির ব্যাপারে স্থানীয় জনগোষ্ঠীদের সর্তক করা হলেও কেউ কর্ণপাত করছেনা।

scroll to top