চকরিয়ায় শশ্মানের জমি দখল নিয়ে ক্ষোভ : আটক-১

Pic-2Chakaria-07.08.18.jpg

মুকুল কান্তি দাশ,চকরিয়া(৭ আগস্ট) :: কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার হারবাং নাথপাড়ায় শশ্মানের জমি জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে। প্রাচীনমত শশ্মানের জমি দখলের আগে মঠ-মন্দিরে ভাঙ্গচুর ছাড়াও বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে লুট করেছে বলে লিখিত অভিযোগে দাবি করা হয়। এঘটনায় সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজনের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ২৭ জুলাই লুট ও দখলের ঘটনার পর সামাজিক ও জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে মীমাংসার চেষ্টা চললেও সুরাহা না হওয়ায় মঙ্গলবার শশ্মান কমিটির পক্ষ থেকে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও চকরিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াছির আরাফাতের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মো.মুরাদ উদ্দিনকে (৩০) আটক করে। আটক মো.মুরাদ উদ্দিন হারবাং ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রশিদ আহমদের ছেলে।

প্রশাসনের কাছে দেয়া অভিযোগে দাবি করা হয়, গত ২৭ জুলাই মুরাদ উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত হারবাং শশ্মানে প্রবেশ করে এবং মঠ-মন্দির ভাঙ্গচুর ও গাছ কেটে বাঁশের বেড়া দিয়ে জমি জবর দখল করে নেয়। এতে বাধা দিলে শশ্মান কমিটির লোকজনদের প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

হারবাং শশ্মান কমিটির সাধারণ সম্পাদক চিত্ত রঞ্জন নাথ বলেন, ঘটনার বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো.মিরানুল ইসলামকে অভিযোগ করি। তিনি সার্ভেয়ার দিয়ে পরিমাপের পর সীমানা নির্ধারন করে দেন। কিন্তু মুরাদ ওই সিদ্ধান্ত না মেনে জোরপূর্বক চেয়ারম্যানের দেয়া খুটিও তুলে ফেলে।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াছির আরাফাত বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত মুরাদকে আটক করেছি। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও শশ্মান কমিটির নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে আলোচনার পর সমাধান না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে, শশ্মানের জমি দখল ও মঠ-মন্দির ভাঙ্গচুর ছাড়াও লুটপাটের ঘটনায় তীব্র নিন্দা এবং দায়ি ব্যক্তির শাস্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ট্রাস্টি অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন, চকরিয়া উপজেলার সভাপতি রতন বরণ দাশ, সাধারণ সম্পাদক মুকুল কান্তি দাশ (সাংবাদিক), সহ-সভাপতি আলংহ্রী রাখাইন, কাজল বড়–য়া, চকরিয়া পৌরসভা শাখার সভাপতি নারায়ন কান্তি দাশ, সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দাশ সুনিপ।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া শাখার সাধারণ সম্পাদক মুকুল কান্তি দাশ বলেন, এঘটনায় ন্যায় বিচার না পেলে ঐক্য পরিষদ আন্দোলন কর্মসুচি ঘোষনা করতে বাধ্য হবো।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri