টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ মাদক কারবারী নিহত : অস্ত্র-ইয়াবা উদ্ধার

arms-fight-group-dead-zia-coxbangla.jpg

হুমায়ুন রশীদ,টেকনাফ(২৫ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের টেকনাফে মাদক ব্যবসায়ীদের দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৩১নং তালিকাভুক্ত ইয়াবাকারবারি ও একাধিক মামলার আসামি  জিয়াউর রহমান (৩৪) নামে এক মাদক কারবারী নিহত হয়েছে। এ সময় অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

রবিবার (২৫ নভেম্বর) ভোরে বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়ার মেরিন ড্রাইভ সড়ক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মাদক ব্যবসায়ী টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া এলাকার মো. ইসলামের ছেলে জিয়াউর রহমান জিয়া (৩২)।

জানা যায়, ভোরে ওই এলাকায় ইয়াবা খালাস নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের দুই গ্রুপের গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশের একটি বিশেষ টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এ সময় ইয়াবা কারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করলে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।এতে থানা পুলিশের এসআই শরীফুল (৩৫), কনস্টেবল ছোটন দাশ (২৩) ও মেহেদী হাসান (২১) আহত হন।

পরে ইয়াবা কারবারিরা পিছু হটলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজন উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় ৩টি দেশি তৈরি অস্ত্র ও ২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

এ অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এবি এমএস দোহা। তিনি জানান, লাশটি পোস্ট মর্টেমের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে নিহত জিয়াউর রহমানের পরিবারের দাবি, গত ২০ সেপ্টেম্বর জিয়াউর তিন সন্তানের জনক তাবলিগ জামায়াতে তিন মাসের জন্য চিল্লায় যান। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার একটি মসজিদের তাবলিগ জামায়াত থেকে পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকধারী কিছু লোক তাকে গত শুক্রবার রাতে তুলে নিয়ে যায়। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

Share this post

PinIt
scroll to top