আল-কায়েদা নেতা লাদেনকে খুঁজে দেওয়ার স্বীকারোক্তি পাকিস্তানের

laden.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৬ নভেম্বর) :: আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের অবস্থান শণাক্ত ও তাকে ধরার কাজে ইসলামাবাদ ভূমিকা রেখেছিল। চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি পাকিস্তান সরকারি এক আধিকারিকের। শুধু তাই নয়, এই বিষয়ে পাকিস্তান বিদেশ দফতরের তরফে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিও দেওয়া হয়েছে। যেখানে স্পষ্ট যে লাদেনকে খুঁজে দেওয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের ভূমিকা ছিল।

রাজনৈতিক ক্ষেত্রে পাকিস্তানের এই বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ এবং গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এর আগে একাধিকবার এই বিষয়ে কথা উঠলেও কোনও মন্তব্য করেনি ইসলামাবাদ। এই প্রথম বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তান সরকার প্রকাশ্যে কোনও স্বীকারোক্তি দিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত রোববার এক টিভি সাক্ষাৎকারে অভিযোগ করেন যে, সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী লড়াইয়ের জন্য তার দেশ শত শত কোটি ডলার দিয়েছে পাকিস্তানকে কিন্তু ইসলামাবাদ কিছুই করে নি। শুধু তাই নয়, আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে পাকিস্তান আশ্রয় দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ট্রাম্প।

মৃত্যুর আগে টিভি দেখতে মগ্ন লাদেন।

এরপর পাকিস্তানের বিদেশ দফতরে ইসলামাবাদে নিযুক্ত মার্কিন চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স পল জোন্সকে তলব করে। পাক বিদেশ দফতর তাদের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলেছে, পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য নিয়েই মার্কিন বাহিনী লাদেনের অবস্থান শণাক্ত করে। পাক সরকারের এই হিসাবি বিবৃতির মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিযোগ নাকচ করা হয়েছে। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময় বিন লাদেন মার্কিন বাহিনীর হাতে নিহত হন কিন্তু ওবামা প্রশাসন সুনির্দিষ্টভাবে বলেছিল যে, লাদেনের অবস্থান সম্পর্কে পাকিস্তান কিছুই জানতো না এমনকি লাদেনকে পাকিস্তান আশ্রয়ও দেয় নি।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri