izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

চ্যাম্পিয়নস লিগে নেইমারের গোলে লিভারপুলকে হারালো পিএসজি

nmr.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৯ নভেম্বর) :: প্যারিসে চ্যাম্পিয়নস লিগের হাইভোল্টেজ ম্যাচে নেইমারের গোলে লিভারপুলকে ২-১ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।

অনেকটা ‘ডু-অর-ডাই’ ম্যাচে লিভারপুলকে ২-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রেখেছে পিএসজি। ইনজুরি থেকে ফিরেই গোল পেয়েছেন নেইমার। অন্য গোলটি হুয়ান বার্নেটের।

‘সি’ গ্রুপে এই ম্যাচের আগে পিএসজি ছিল তিন নম্বরে। এই জয়ে তারা দুইয়ে উঠে এসেছে। দুই থেকে নেমে যেতে হয়েছে লিভারপুলকে। নেইমারদের পয়েন্ট ৮। লিভারপুলের ৬। শেষ ষোলোয় জেতে হলে সামনের ম্যাচে লিভারপুলকে নাপোলিকে হারাতে হবে। ৯ পয়েন্ট নিয়ে দলটি শীর্ষে আছে।

নিজেদের মাঠে পিএসজি শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে। গোলের জন্য খুব বেশি অপেক্ষাও করতে হয়নি। ১৩ মিনিটের সময় ডি-বক্স থেকে ডান পায়ের শটে কাছের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন বার্নেট। এরপর ৩৭তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার।

বাঁ উইং ধরে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন এমবাপে। বল দেন কাভানিকে। কাভানির পা ঘুরে বল চলে যায় নেইমারের কাছে। অনায়াসে লিগে এই মৌসুমে নিজের চতুর্থ গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। সব মিলিয়ে চলতি মৌসুমে গোলসংখ্যা দাঁড়াল ১৪টি। সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন ছয়টি।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে পেনাল্টি পায় লিভারপুল। স্পটকিক থেকে মিলনার এক গোল শোধ দেন। কিন্তু সমতাসূচক গোলটি আর পাওয়া হয়নি তাদের।

অপর ম্যাচে বুধবার রাতে লিওনেল মেসির ঝলকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর্বটাও সেরে নিলো কাতালানরা। পিএসভি আইন্দহোফেনের মাঠ থেকে ফিরেছে তারা ২-১ গোলের জয় নিয়ে।

অন্য ম্যাচে ‘এ’ গ্রুপে মোনাকোকে ২-০ গোলে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্বে উঠে গেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

বুধবার রাতে অন্যান্য ম্যাচের ফলাফল…..

Atl Madrid Monaco 0

B Dortmund Club Brugge 0

PSV EindhovenBarcelona 2

Tottenham Inter Milan 0

Napoli Red Star Belgrade 1

PSG Liverpool 1

FC PortoSchalke 1

Lokomotiv Moscow Galatasaray 0

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মঙ্গলবার রাত জায়ান্টদের জন্য ছিল উৎসবের। ‘ই’ থেকে ‘এইচ’— এ চার গ্রুপে এক ভ্যালেন্সিয়া ছাড়া সব বড় দলই জায়গা করে নিয়েছে নকআউট পর্বে। জয় নিয়ে শেষ ষোলোতে যোগ দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ, জুভেন্টাস, বায়ার্ন মিউনিখ, আয়াক্স ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ড্র করেও নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছে ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি।

জায়ান্টদের উৎসবের রাতে নতুন উচ্চতায় উঠেছেন জুভেন্টাসের ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ইতিহাসে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ১০০ জয়ের কীর্তি গড়লেন সিআর সেভেন।

গ্রুপ পর্বে এখনো বাকি আছে এক ম্যাচ। তার পরও ‘ই’ থেকে ‘এইচ’— এ চার গ্রুপ থেকে এরই মধ্যে সাতটি দল পৌঁছে গেছে শেষ ষোলোয়। শুধু ‘এফ’ গ্রুপে সুযোগ আছে একটি দলের। এ গ্রুপ থেকে পাঁচ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্বে জায়গা করে নিয়েছে ম্যানসিটি। দ্বিতীয় স্থানের জন্য লড়াইটা এখন লিওঁ ও শাখতার দোনেেস্কর মধ্যে। পাঁচ ম্যাচে লিওঁর সংগ্রহ ৭ পয়েন্ট। দোনেেস্কর ৫। এ দুই দল মুখোমুখি হবে আগামী ১২ ডিসেম্বর। ওই ম্যাচে ঘরের মাঠে খেলার সুবিধা পাচ্ছে দোনেত্স্ক। গত পরশুর লিওঁ আর ম্যানসিটি ম্যাচটি শেষ হয় ২-২ গোলে। আর হফেনহেইমকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে দোনেত্স্ক। টেবিলে তলানিতে থাকা হফেনহেইমের সংগ্রহ ৩ পয়েন্ট।

‘ই’ গ্রুপে বড় জয়োৎসবেই শেষ ষোলোতে পৌঁছেছে বায়ার্ন ও আয়াক্স। বেনফিকাকে ৫-১ গোলে হারিয়েছে জার্মান জায়ান্টরা। এইকে এথেন্সকে ২-০ গোলে হারিয়েছে ডাচ দল আয়াক্স। পাঁচ খেলায় ১৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে বায়ার্ন। আর সমান ম্যাচে আয়াক্সের সংগ্রহ ১১ পয়েন্ট। পাঁচ খেলায় বেনফিকার ঝুলিতে ৪ পয়েন্ট। আর এইকে পয়েন্টশূন্য। ‘জি’ গ্রুপে রোমাকে ২-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ পর্বে শীর্ষস্থানে উঠেছে রিয়াল। হারলেও শেষ ষোলোতে পৌঁছে গেছে রোমা। পাঁচ ম্যাচে রিয়ালের সংগ্রহ ১২ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে রোমার ৯ পয়েন্ট। এ গ্রুপের বাকি দুই দল সিএসকেএ মস্কো ও ভিক্টোরিয়া প্লজেনের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। গ্রুপের শেষ রাউন্ডের চারটি ম্যাচই নিয়ম রক্ষার।

‘এইচ’ গ্রুপে জয়ের মধ্য দিয়েই শেষ ষোলোর উৎসব করেছে জুভেন্টাস ও ম্যানইউ। স্প্যানিশ দল ভ্যালেন্সিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে জুভেন্টাস। আর ইয়াং বয়েজকেও একই ব্যবধানে হারিয়েছে ম্যানইউ। পাঁচ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে জুভেন্টাস। আর সমান ম্যাচে ম্যানইউর সংগ্রহ ১০ পয়েন্ট। তৃতীয় স্থানে থাকা ভ্যালেন্সিয়া পেয়েছে মোটে ৫ পয়েন্ট। এক ম্যাচ হাতে থাকতেই শেষ হয়ে গেল ভ্যালেন্সিয়ার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিশন। গ্রুপের তলানিতে থাকা ইয়াং বয়েজ পেয়েছে ১ পয়েন্ট। গত পরশু গোল না করলেও ৩৩ বছর বয়সী সুপারস্টার রোনালদোর জন্য ছিল অন্যরকম এক রাত। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ইতিহাসে জয়ের সেঞ্চুরি পেলেন এ ফুটবল সেনসেশন। অবশ্য ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের একমাত্র গোলটিতে ছিল তার ছোঁয়া। তার পাসেই গোল করেন মারিও মান্দজুকিচ। এএফপি, বিবিসি

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri