মহেশখালী গোরকঘাটা শ্মশান ও শিব মন্দিরের বেড়াঁ কেটেঁ দানবক্সের টাকা ও জিনিসপত্র লুট

47361006_2121728411212556_6012248894870650880_n.jpg

এম রমজান আলী,মহেশখালী(৩ ডিসেম্বর) :: মহেশখালী উপজেলার পৌরসভাস্থ গোরকঘাটা জলদাশ পাড়া শ্মশান ও শিব মন্দিরের বেড়াঁ কেটেঁ দানবক্সের টাকা ও আনুসাংঙ্গিক জিনিসপত্র লুট করেছে দুর্বৃত্তরা থানায় অভিযোগ দায়ের।

২রা ডিসেম্বর গভীর রাত্রে দৃর্বৃত্তরা মন্দিরের বেড়াঁ কেটেঁ দানবক্সের টাকা, পূজা অচর্না দেওয়ার সরই, কাসা, ঘন্টা, গ্লাস সহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে নিয়েছে বলে জানিয়েছে শ্মশান পরিচালনা কমিটির সভাপতি ঝুলন কুমার দাশ সহ কমিটির নেতৃবৃন্দ।

লুটের যাবতীয় তথ্য বিবরণী দিয়ে শ্মশান পরিচালনা কমিটির সভাপতি ঝুলন কুমার দাশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে মহেশখালী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।শ্মশান পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ ত্ৎক্ষনাত থানার ওসি সুভাষ চন্দ্র ধর, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের উপজেলা সভাপতি বাবু জেমসন বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর বাবু রতন কান্তি দে, সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জ্বল দে, সমাজ সেবক উদ্বব জলদাশ সহ সকল নেতৃবৃন্দকে অবহিত করেছে। তৎ মুর্হুতে থানার ওসির নির্দেশে ঘটনাস্থলে পুলিশ টিম পরিদশর্নে গিয়েছিল।

পুলিশের সাথে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক চন্দন দে, সহ-সভাপতি প্রদীপ দে শ্রীদাম ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাধন দাশ, মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুদশন সর্দার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সূণীল দাশ, ত্রান ও পূনর্বাসন সম্পাদক সুপা দাশ, দপ্তর সম্পাদক ভবেশ রন্জন দে, যুব বিষয়ক সম্পাদক নয়ন দে, সদস্য সচিব মিন্টু সরকার, উদিচির সাবেক সভাপতি মঙ্গল দাশ, সদস্য সুভাষ দাশ সহ শিব মন্দিরের পূজারী স্নেহ সরকার সহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিতকালে শ্মশান পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দরা বলেন, অবিলম্বে দৃর্বৃত্তদের চিহ্নিত করে দৃষ্ঠান্ত মুলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি সুভাষ চন্দ্র ধর জানান, দৃর্বৃত্ত যেই হোক তাদের চিহ্নিত করে দৃষ্ঠান্ত মুলক শাস্তি দেওয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top