মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের প্রকল্পে ১০,৮৬১ নিয়োগ

-নিউজ-০০৮.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১২ ডিসেম্বর) :: মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের ‘কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন’ প্রকল্পে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। জেন্ডার প্রমোটার, সংগীত শিক্ষক ও আবৃত্তি বা কণ্ঠশীলন শিক্ষক পদে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদন করা যাবে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। বিস্তারিত …..

কিশোর-কিশোরী ক্লাব

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে সারা দেশে চার হাজার ৮৮৩টি কিশোর-কিশোরী ক্লাব চালু হচ্ছে। ইভ টিজিং বন্ধ, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ, জন্মনিবন্ধন, বিয়ে নিবন্ধন, যৌতুক প্রতিরোধ, শিশু অধিকার, নারী অধিকার, জেন্ডারভিত্তিক বৈষম্য, যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধসহ ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীদের সচেতন করবে এসব ক্লাব। প্রতিটি ক্লাবের ১১-১৮ বছর বয়সী সদস্য থাকবে ৩০ জন। এর মধ্যে ১০ জন কিশোর ও ২০ জন কিশোরী।

মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন ‘কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন’ শীর্ষক প্রকল্পের বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। জেন্ডার প্রমোটার পদে এক হাজার ৯৫ জন, সংগীত শিক্ষক পদে চার হাজার ৮৮৩ জন এবং আবৃত্তি বা কণ্ঠশীলন শিক্ষক পদে চার হাজার ৮৮৩ জনকে নেওয়া হবে। প্রকল্প মেয়াদকালের জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে এসব নিয়োগ দেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশিত হয়েছে ৩ ডিসেম্বরের যুগান্তরে। পাওয়া যাবে নরঃ.ষু/২ট৯ি৯ষব লিংকে।

আবেদনের যোগ্যতা
জেন্ডার প্রমোটার পদে এইচএসসি হতে হবে। থাকতে হবে সংশ্লিষ্ট কাজে কমপক্ষে দুই বছরের অভিজ্ঞতা। জানতে হবে কম্পিউটার (মাইক্রোসফট অফিস) ও বাই সাইকেল চালনা। শুধু মহিলা প্রার্থী আবেদন করতে পারবে।

সংগীত শিক্ষক এবং আবৃত্তি বা কণ্ঠশীলন শিক্ষক পদে শিক্ষাগত যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে এসএসসি। থাকতে হবে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ডিপ্লোমা। শিশু একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি ও সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রথিতযশা প্রতিষ্ঠানের সনদ দাখিল করতে হবে। চাওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে থাকতে হবে এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা। মহিলা প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে সব পদে বয়সসীমা অনূর্ধ্ব ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩২ বছর।

আবেদনের নিয়ম
সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর সাদা কাগজে প্রার্থীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, স্থায়ী ঠিকানা, যোগাযোগের ঠিকানা, জন্ম তারিখ, শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, জাতীয়তা, বৈবাহিক অবস্থা ও মোবাইল নম্বর উল্লেখ করে আবেদন করতে হবে। খামের ওপর ডান পাশে পদের নাম, নিজ উপজেলা ও জেলার নাম উল্লেখ করতে হবে। কোটা থাকলেও তাও উল্লেখ করতে হবে। চাকরিরতদের কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আবেদনের নিয়ম বিস্তারিত দেওয়া আছে বিজ্ঞপ্তিতে। আবেদন করা যাবে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

নিয়োগ পদ্ধতি
মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের ‘কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন’ প্রকল্পের কর্মকর্তারা জানান, নিয়োগ পরীক্ষা কোন পদ্ধতিতে হবে তা এখনো নির্ধারিত হয়নি। তবে অর্থ বিভাগের জনবল নির্ধারণ কমিটি কর্তৃক আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে নিয়োগের কথা বলা হয়েছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে। প্রার্থী বাছাই করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আহবায়ক করে তিন সদস্যের একটি প্যানেল কমিটি গঠনের কথাও বলা হয়েছে। কমিটি প্রতিটি ক্লাবের প্রত্যেক পদে আবেদনকারীদের মধ্য থেকে যোগ্য ৭ জনের একটি প্যানেল তালিকা করবে। আউটসোর্সিং ফার্ম এই প্যানেল থেকে মেধাক্রম অনুযায়ী নিয়োগ দেবে। প্রার্থী তালিকা করার জন্য আবেদনকারীর সংখ্যা বিবেচনায় লিখিত বা এমসিকিউ পরীক্ষা হতে পারে। প্রশ্ন আসতে পারে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান থেকে।

বাংলা
নিয়োগ পরীক্ষার বাংলা প্রশ্নে গুরুত্ব দেওয়া হয় ব্যাকরণ অংশে। সাহিত্য থেকেও কিছু প্রশ্ন আসে। ব্যাকরণ অংশে ধ্বনি, বাক্য, শব্দ, কারক, বিভক্তি, উপসর্গ, সন্ধিবিচ্ছেদ, পদ প্রকরণ, সমাস, ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব বিধান, বানান ও বাক্য শুদ্ধি থেকে প্রশ্ন হতে পারে। জানতে হবে বাগধারা, বিপরীত শব্দ, সমার্থক শব্দ, পারিভাষিক শব্দ ও এককথায় প্রকাশ। প্রস্তুতির জন্য নবম-দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ বইটি সহায়ক হবে। সাহিত্য অংশের প্রস্তুতির জন্য মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্য বইয়ের কবি-সাহিত্যিকদের জীবনী, জন্ম-মৃত্যু সাল, রচিত বিভিন্ন গ্রন্থ ও সাহিত্যকর্ম সম্পর্কে জানতে হবে।

ইংরেজি
ইংরেজিতে বেশির ভাগ প্রশ্ন করা হয় গ্রামার থেকে। Spelling, Correction, Gender, Preposition, Number, Right forms of verb, Article, Tense,  Parts of Speech, Narration, Voice change থেকে প্রশ্ন থাকে। Antonym, Synonym, Spelling আয়ত্ত করতে হবে। ইংরেজি থেকে বাংলা বা বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ থাকতে পারে। ভালোমানের গ্রামার বই অনুসরণ করতে হবে।

গণিত
গণিতে প্রশ্ন আসতে পারে পাটিগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতি থেকে। পাটিগণিতে ঐকিক নিয়ম, সুদকষা, লাভ-ক্ষতি, লসাগু-গসাগু নির্ণয়, ভগ্নাংশ থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। জ্যামিতির সংজ্ঞা, কোণ, বীজগণিতের সূত্র থেকেও প্রশ্ন আসার সম্ভাবনা আছে। অষ্টম ও নবম-দশম শ্রেণির গণিত বই থেকে মৌলিক প্রস্তুতি নিতে হবে। বাজারে নিয়োগ পরীক্ষার বিগত বছরের প্রশ্নসহ গণিতের অনেক বই পাওয়া যায়।

সাধারণ জ্ঞান
সাধারণ জ্ঞানের নির্দিষ্ট সিলেবাস নেই। বাজারে বিভিন্ন প্রকাশনীর সাধারণ জ্ঞানের বই পাওয়া যায়। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক অংশের যে বিষয়গুলো থেকে বেশি প্রশ্ন আসে, তা আয়ত্ত করতে হবে। সাম্প্রতিক বিষয়াবলি থেকে প্রশ্ন আসে। দৈনিক পত্রিকা নিয়মিত পড়ার অভ্যাস কাজে দেবে। সাম্প্রতিক তথ্য পেতে দেখতে পারেন মাসিক কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স।

বেতন-ভাতা
সপ্তাহে দুদিন হারে মাসে আট দিন কাজ করতে হবে। জেন্ডার প্রমোটার পদে দৈনিক বেতন ১০০০ টাকা (সাকল্য বেতন ৮০০০ টাকা) পাওয়া যাবে। সংগীত শিক্ষক এবং আবৃত্তি বা কণ্ঠশীলন শিক্ষক পদে দৈনিক ৫০০ টাকা হারে সাকল্য বেতন ৪০০০ টাকা।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri