দেশজুড়ে আলোচনায় নতুন অর্থমন্ত্রী

ECO-minster.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(৩ জানুয়ারি) :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে আওয়ামী লীগ। নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের ইতিমধ্যে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখন দেশজুড়ে আলোচনার বিষয় হচ্ছে নতুন মন্ত্রিসভা। সবার দৃষ্টি এখন মন্ত্রিসভার দিকে। কেমন হবে এবারের মন্ত্রিসভা? কারা থাকছেন নতুন মন্ত্রিসভায়? এই আলোচনার মধ্যে আবার শীর্ষে আছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর বিষয়টি। কে হচ্ছেন নতুন অর্থমন্ত্রী তা নিয়ে দেশজুড়ে আলোচনা এবং কৌতুহলের শেষ নেই।

বর্তমান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সংসদ থেকে বিদায় নিচ্ছেন, এবারের নির্বাচনেও অংশ নেননি তিনি। তিনি নিজেই অবসরের যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তাই এবারে নতুন কোন অর্থমন্ত্রী আসবেন এটা প্রায় নিশ্চিত। তবে গতকাল তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী চাইলে আরও এক বছর তিনি দায়িত্ব পালন করতে চান।

আওয়ামী লীগের বেশ কিছু সিনিয়র নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আবুল মাল আব্দুল মুহিতই যে অর্থমন্ত্রী থাকছেন তা নিশ্চিত নয়। নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে যাদের নাম আলোচনার শীর্ষে আছেন, তারা হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ফরাসউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা মশিউর রহমান, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এবং অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।

ফরাসউদ্দিন: নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় রয়েছেন ফরাসউদ্দিন। তিনি এবার হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চেয়েছিলেন, তবে তিনি মনোনয়ন পাননি। ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর একান্ত সচিব ছিলেন এই অর্থনীতিবিদ। তিনি ১৯৯৮ সালের ২৪ নভেম্বর থেকে ২০০১ সালের ২২ নভেম্বর পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন হিসেবে ফরাসউদ্দিনের সুনাম রয়েছে। তাই নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে তাঁর সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। তবে ফরাসউদ্দিনকে মন্ত্রী করলে তাঁকে টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রী করতে হবে।

আ হ ম মোস্তফা কামাল: নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয় আলোচিত নাম হচ্ছে বর্তমানে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি গত পাঁচ বছর ধরে মন্ত্রিসভায় আছেন। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে অনেকটা সংশ্লিষ্ট। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এই মন্ত্রণালয়কে আলাদা করা হয়। মোস্তফা কামাল অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্বও পালন করছেন। তাই সরকার সংশ্লিষ্ট অনেকে মোস্তফা কামালের অর্থমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলেই মনে করছেন।

মশিউর রহমান: অর্থমন্ত্রী হওয়ার বিষয়ে আরও একটি নাম খুব বেশি আলোচনায় আছে। তিনি হলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা মশিউর রহমান। ২০১৪ সাল থেকে তিনি এই পদে আছেন। অর্থনীতিবিদ হিসেবে তিনি দেশে-বিদেশে সমাদৃত। তিনি অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তাই অর্থমন্ত্রী হিসেবে তাঁর সম্ভাবনা যথেষ্ট বলেই মনে করছেন আওয়ামী লীগের অনেকে।

এম এ মান্নান: বর্তমান সরকারের অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। গত পাঁচ বছর ধরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছেন মুহিতের ডেপুটি হিসেবে। ফলে এই মন্ত্রণালয়ের নানা খুটিনাটি বিষয় এবং কাজের ধরন এম এ মান্নানের জানা। তিনি ইকোনমিক মিনিস্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জেনেভায় অবস্থিত বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে। সুনামগঞ্জ-৩ আসন থেকে মান্নান পরপর নির্বাচিত সংসদ সদস্য। ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে অর্থ প্রতিমন্ত্রী হিসেবে তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তাই অনেকে মনে করছেন এম এ মান্নাকে হয়তো পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।

আওয়ামী লীগের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে কাকে দায়িত্ব দিবেন তা সম্পূর্ণ প্রধানমন্ত্রী চূড়ান্ত করবেন। অর্থমন্ত্রীও হয়তো আবার একবছরের জন্য দায়িত্ব পেতে পারেন। আবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হয়তো বরাবরের মত আবারো নতুন কোন চমক দেখাতে পারেন। আর কয়েকদিনের মধ্যেই জানা যাবে কে হচ্ছেন নতুন অর্থমন্ত্রী?

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri