টটেনহ্যামকে হারিয় ফাইনালে চেলসি

chel.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৫ জানুয়ারী) :: রুদ্ধশ্বাস জয়ের পরও ফাইনালে যাওয়ার ছাড়পত্র পায়নি দ্য ব্লুজ৷ কারণ দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন সমান হওয়ায় টাইব্রেকারে ভাগ্য নিষ্পত্তি হয় টটেনহ্যাম-চেলসির৷ পেনাল্টি শুট-আউটে টটেনহ্যামকে ৪-২ ব্যবধানে হারিয়ে লিগ কাপের ফাইনালে উঠল চেলসি৷

বৃহস্পতিবার স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে সেমি-ফাইনালের ফিরতি পর্বে ২-১ গোলে জেতে চেলসি। কিন্তু গত সপ্তাহে টটেনহ্যাম হটস্পার তাদের মাঠে ১-০ গোলে জেতায় দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন দাঁড়ায় ২-২। ম্যাচের ২৭ মিনিটে নিজেদের ভুলে গোল খায় টটেনহ্যাম। কর্নার থেকে বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ডি-বক্সের বাইরে ফাঁকায় পেয়ে যান কঁতে। ফরাসি মিডফিল্ডারের নেওয়া আচমকা জোরালো নিচু শটে বল মুসা সিসোকোর পা-ছুঁয়ে আর্জেন্তাইন গোলরক্ষক পাওলো গাস্সানিরার দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে জালে জড়ায়।

এর দশ মিনিট পর অর্থাৎ ম্যাচের ৩৮ মিনিটে দারুণ এক গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আজার। ডান দিকের বাইলাইন থেকে স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সেসার আসপিলিকুয়েতার কাট ব্যাকে বল পেনাল্টি বক্সের কাছে পেয়ে বাঁ-পায়ের শটে গোল করেন বেলজিয়ামের এই ফরোয়ার্ড। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যায় টটেনহ্যাম। বাঁ-দিক থেকে রোজের হেডে ব্যবধান কমান স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড লরেন্তে।

৬৪ মিনিটে দারুণ পজিশনে বল পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন লরেন্তে। ১০ মিনিট পর ২০ গজ দূর থেকে আজারের শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়৷ তার পর অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে ফরাসি ফরোয়ার্ড জিরুদের হেড অল্পের জন্য মিস হওয়ায় ২-১ ম্যাচ জিতে যায় চেলসি৷ কিন্তু দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ২-২ হাওয়া টাইব্রেকারে নিষ্পত্তি হয়৷

টাইব্রেকারে চেলসির হয়ে গোল করেন উইলিয়ান, আসপিলিকুয়েতা, জর্জিনিয়ো ও দাভিদ লুইস। টটেনহ্যামের প্রথম দুই শটে বল জালে পাঠান এরিকসেন ও লামেলা। কিন্তু তাদের তৃতীয় শটটি উড়িয়ে দেন ডায়ার। আর লুকাসের শট বাঁ-দিকে ঝাঁপিয়ে রুখে দেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলরক্ষক স্পেনের আরিসাবালাগা। ২৪ ফেব্রুয়ারি লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হবে চেলসি।

Share this post

PinIt
scroll to top