কক্সবাজার পৌর আ:লীগের সংবাদ সম্মেলনে জাফর আলমের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যহার ও মুক্তির দাবী

alg-pr.jpg

বার্তা পরিবেশক(২৯ জানুয়ারি) :: কক্সবাজার শহরে নাশকতা মামলার আসামী জামশেদ,আকতার কামালকে গ্রেফতর করা হোক এবং তাদের সিন্ডিকেট সদস্যকে চিহ্নিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগ।

নাশকতা মামলার আসামি কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা ছিদ্দিকী জামসেদ, আকতার কামাল ও নাসিমা আকতার বকুলকে গ্রেপ্তার না করে কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের আওতাধীন ৭নং ওয়ার্ডের সভাপতি জাফর আলমকে গ্রেপ্তার একটি ষড়যন্ত্রের অংশ।

বিএনপি-জামায়াতের একটি কুচক্রিমহল বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে তাকে হয়রানি করছে। যার ফলশ্রুতিতে গত ২৫ জানুয়ারি দিবাগত রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

অভিলম্বে জাফর আলবামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যহার ও মুক্তির দাবীতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে পৌর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২০১৫ সালে পাহাড়তলীর দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী জাকের মোস্তাফা তার নিজ সন্ত্রাসী বাহিনীর অন্তঃকোন্দলে নিহত হয়।
এই হত্যাকান্ডে জাফরকে আসামী করা হলেও পুলিশ তদন্ত রিপোর্টে জাফর এর কোন সম্পৃক্ততা পাওয়া না গেলে তাকে আসামী থেকে বাদ দেওয়া হয়।

পরবর্তীতে জাফরকে জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ এর প্ররোচনায় আদালতে না রাজি দিয়ে জাফরকে আবারো মামলার আসামীভুক্ত করা হয়।

অন্য অপর একটি মামলা ২০১১ সালে পাহাড়তলীর আর এক দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী সালাহ উদ্দিন পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে পায়ে গুলিবিদ্দ হয়।

এই মামলায় পুলিশের তৎকালীন সোর্স হিসাবে এক পরিচিতর প্ররোচনায় জাফরকে আসামী করা হয়। জাফর মুলতঃ জামায়াত শিবিরের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।

গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে পাহাড়তলীর বৌবাজার এলাকায় আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ ও এলাকার ইয়াবা ব্যবসায়ী এবং সন্ত্রাসীদের গডফাদার এর নেতৃত্বে নৌকা মার্কার নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করে। এই হামলায় নাশকতার একটি মামলা দায়ের করে ৭নং ওয়ার্ড পৌর আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে জাফরকে হত্যার পরিকল্পনা সহ বিভিন্ন হয়রানির ছক আঁকে এই চক্র। এই চক্রের এক প্রভাবশালী সদস্য এক বিতর্কিত ব্যক্তি। তাকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ বিগত পৌরসভা নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডে জাফর আলমের সাথে ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। সে নির্বাচনে জাফরের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে সে বিভিন্ন মামলায় তাকে মিথ্যা অভিযোগে আসামী করে।

২৫ জুলাই এর পৌর নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডের রহমানিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রের ভোট জালিয়াতির মাধ্যমে জাফর এর নিশ্চিত বিজয়কে ঠেকিয়ে অবৈধভাবে বিজয় অর্জন করে। এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে পুনঃ নির্বাচন দাবী করছি।

তিনি লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, সম্প্রতি ৭নং ওয়ার্ডের বৌবাজার সংলগ্ন কক্সবাজার আওয়ামীলীগ নেতা ওমর ফারুক এর পিতা মরহুম বশর ড্রাইভারকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু একটি জমি বরাদ্দ দিয়েছিলেন।

সম্প্রতি ওমর ফারুকসহ তার পরিবারের সদস্যরা জমিটির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ সহ একটি ভূমিদস্যু চক্র বাধা দেয়। এসময় ওয়ার্ড সভাপতি জাফর আলম ওমর ফারুককে সহযোগিতা করলে ভূমিদস্যু চক্রটি ক্ষিপ্ত হয়। জাফর আলমকে হত্যার জন্য ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয় বলে খবর পাওয়া যায়।

এ বিষয়টি কক্সবাজার সদর মডেল থানাকে অবহিত করা হলেও অদ্যবদি নাশকতা মামলার আসামী কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ, আকতার কামাল কাউন্সিলর ও নাসিমা আকতার বকুল কাউন্সিলর প্রকাশ্যে চলাফেরা করে আসলেও তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না।

আমরা কক্সবাজার পুলিশ প্রশাসনের এই ধরণের উদাসিনতামূলক কর্মকান্ডে অসন্তোষ প্রকাশ করছি।

একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় নাশকতা মামলার আসামীরা নিরাপদে থেকে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের উপর হামলাসহ বিভিন্ন হয়রানিমূলক মামলা জড়ানোর চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। আমরা আপনাদের মাধ্যমে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় একজন নিবেদিত রাজনৈতিক নেতার নামে মিথ্যাচার এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং মিথ্যা সংবাদ প্রচার থেকে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি।

পাশাপাশি জাফর আলম এর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার সহ নাশকতা মামলার আসামী কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা সিদ্দিকী জামশেদ, কাউন্সিলর আকতার কামাল, কাউন্সিলর নাসিমা আকতার বকুলসহ সকল আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানাচ্ছি।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জল কর। উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri