মহেশখালীতে ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ, স্কুল ছাত্রী সহ আহত-৬

50917547_2349305582005658_1303111777894006784_n.jpg

এম.রমজান আলী,মহেশখালী(২৮ জানুয়ারী) :: মহেশখালীতে দিন দুপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসী হামলা ব্যবসায়ী গুলিবৃদ্ধ নগদ টাকা সহ মালামাল লুটপাট মহেশখালীতে দিনদুপুরে সন্ত্রাসীরা এক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে একরাম নামে এক মুদি ব্যবসায়ীকে গুলি করে আহত করে নগদ টাকা,মোবাইল সেট,দোকানের মালামাল সহ প্রায় ২লক্ষ টাকা লুটে নিয়েছে স্থানীয় সন্ত্রাসী মৃত ছলুর পুত্র মোঃ হোসেনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী।

ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় মহেশখালী উপজেলার বড় মহেশখালী ইউপিস্থ পশ্চিম ফকিরাঘোনা এলাকায় একরামের মুদির দোকানে। গুলিবিদ্ধ মুদি ব্যবসায়ী স্থানীয় জালাল আহম্মদের পুত্র। অপরাপর আহতা হলেন, বড় মহেশখালী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ইসরাত জাহান সুমি, মরিয়ম খাতুন, মো. জামাল, সুলতান ও ওহিদুল আলম।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মহেশখালী উপজেলার বড় মহেশখালী ইউপিস্থ পশ্চিম ফকিরাঘোনা এলাকায় সোমবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় স্থানীয় সন্ত্রাসী বহু মামলার পলাতক আসামী মৃত ছলুর পুত্র মোঃ হোসেনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে গাড়ী যোগে এসে একরামের মুদির দোকানে প্রবেশ করে মুদির দোকানের মালিক মোঃএকরামের উপর অর্তকিতভাবে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়।

এসময় সন্ত্রাসীরা মোঃ একরামের দোকানের ক্যাশবাক্সে থাকা নগদ টাকা,দোকানের মালামাল,লবণ চাষিদের চার্জে দেওয়া মোবাইল সেট সহ প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

স্থানীয় লোক জন ঘটনার কথা মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রভাষ চন্দ্র ধরকে অবহিত করলে, অফিসার ইনচার্জ এর নির্দেশে এস আই মাহামুদুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনা স্থাল পরিদর্শন করে ব্যবসায়ী একরামকে গুলিবৃদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে মহেশখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাঃ আহতর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় একরামকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করে সেখান থেকে চিকিৎসকেরা চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শরা জানানঃ-বড় মহেশখালী ইউপিস্থ পশ্চিম ফকিরাঘোনা গ্রামে আজ সকাল ১১ ঘটিকার সময় হঠাৎ করে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী বহু মামলার পলাতক আসামী মোঃ হোসেন, হাসেম, রবিউল আলম, আনোয়ার হোসেন, ফারুক ও মো নেজাম উদ্দিনের নেতৃত্বে ১০/১৫ জনের একদল লোক এসেই একরামের মুদির দোকানে সামনে পাকাগুলি ছুড়ে মুদির দোকানে প্রবেশ করে ব্যবসায়ী একরামকে বেদম এলোপাতাড়ী মারধর করে গুলি করে দোকানের টাকা পয়সা ও মুল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে দ্রুত চলে যায়।

মহেশখালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্তক্রমে আইনগন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri