কক্সবাজার সদরের পোকখালীতে ৫ শিক্ষার্থীকে মারধর ও চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ

20190130_222506.jpg

মোঃ রেজাউল করিম,ঈদগাঁও(৩০ জানুয়ারী) :: কক্সবাজার সদরের পোকখালীতে ফুটবল খেলার এক পরিচালকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। টাকা ফেরত চাওয়ায় ওই পরিচালক খেলা আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট পাঁচ শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মারধর ও চুল কেটে দিয়েছে। ইউনিয়নের দক্ষিণ নাইক‍্যদিয়ায় মঙ্গল ও বৃহস্পতি বার সংঘটিত এ ঘটনায় পুলিশের প্রতিকার চাওয়া হয়েছে।

ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রে প্রদত্ত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান তার অন্যান্য সঙ্গীদের নিয়ে এলাকায় একটি ফুটবল খেলার আয়োজন করে। একই এলাকার মুদির দোকানী মোঃ সাহেদকে উক্ত খেলার পরিচালক নিয়োগ করা হয়। সে স্থানীয় আমির সুলতানের পুত্র।

আয়োজকরা পরিচালক হিসেবে তার নিকট খেলার ট্রফির টাকা বাবদ ১৬ টাকা জমা রাখে। ফাইনাল খেলার ট্রফির জন্য গত মঙ্গলবার আশিক ও তার সঙ্গীরা ওই পরিচালকের নিকট জমা থাকা টাকা ফেরত চায়।

ওই পরিচালক আশিকুর রহমান সহ তার সঙ্গীদের দোকানের ভিতর কে নিয়ে তালাবদ্ধ করে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারে এবং কাঠি দিয়ে তাদের চুল এবডু থেবডু কেটে দেয়। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করেন পরদিন বুধবার সকালে শিক্ষার্থীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার সময় তাদের বাধা প্রদান করে এবং হুমকি দেয়। আশিকুর রহমান চৌফলদন্ডী সবুজবাগ স্কুল এন্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

অন্য আহতদের মধ্যে রয়েছে নাইক্ষ্যংদিয়া এস,টি দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী তৌহিদুল ইসলাম, ঈদগাহ আদর্শ শিক্ষা নিকেতন এর নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম, নাইক্ষ্যংদিয়া এস,টি দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী শাহেদুল ইসলাম ও পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মফিজুর রহমান।

এ ঘটনায় আশিকের পিতা বেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

Share this post

PinIt
scroll to top