এশিয়ান কাপ ফুটবল : ফাইনালে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে জাপান ও কাতার

Japan-vs-Qatar.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(৩১ জানুয়ারী) :: এশিয়ান কাপ ফুটবলে সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে জাপানের। চার চারবার এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পরেছে তারা।শুক্রবার পঞ্চম মুকুট জয়ের হাতছানি ব্লু সামুরাইদের সামনে। তবে তাদের কাজটি এবার কঠিন করে দিতে পারে কাতার। মরুর দেশের একঝাঁক ফুটবলার ইতিহাস গড়তে মরিয়া। এরই মধ্যে ইতিহাস গড়ে ফাইনালে উঠে আসা কাতারিরা শুক্রবার এশিয়ান কাপ মিশনকে দিতে চায় পূর্ণতা।

বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শক্তিশালী জাপানের মুখোমুখি হবে দলটি।

আবুধাবিতে স্বাগতিক সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ৪-০ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে নাম লেখায় কাতার। রাজনৈতিকভাবে চরম ‘শত্রু’ দেশটির সমর্থকরা হার মেনে নিতে না পেরে কাতারি ফুটবলারদের ওপর প্লাস্টিকের বোতল, এমনকি জুতা ছুড়ে মারে। এমনই কঠিন ও বৈরী পথ পাড়ি দিয়ে আসা কাতারিরা এখন বিশ্বাস করে জাপানের কাছে হারানোর কিছু নেই তাদের।

দলটির স্ট্রাইকার আলমোয়েজ আলী বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে একটি স্বপ্নকে অনুভব করতে পারছি, যা করছে গোটা দেশও। ফাইনালে আমাদের ধৈর্যের পরিচয় দিতে হবে। আমরা যদি ধৈর্য ধরে খেলি, তবে আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগও আছে।’

টানা ছয় ম্যাচে জেতা কাতার এখন বড় স্বপ্নই দেখছে। ‘ম্যারুনস’ কোচ ফেলিক্স সানচেজ কাতারের জয়রথ নিয়ে বলেন, ‘এটা দেশের জন্য অনেক বড় অর্জন। ঐতিহাসিকভাবে জাপান একটি শীর্ষ দল, কিন্তু সুযোগ লুফে নিয়ে ম্যাচটি জিতব বলে আমরা অনেক আত্মবিশ্বাসী।’

জাপান তাদের চার শিরোপার সর্বশেষটি জিতেছে ২০১১ সালে। এবার সেমিফাইনালে অন্যতম ফেভারিট ইরানকে ৩-০ গোলে গুঁড়িয়ে দেয় জাপান। এশিয়ান পরাশক্তি জাপানের অনুপ্রেরণা, এশিয়ান কাপ ফাইনালে কখনই হারেনি তারা। তবে এবার কাতারি ডিফেন্স কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলবে জাপানিদের। ছয় ম্যাচে কোনো গোল হজম করেনি তারা! যদিও জাপানের মতো এতটা ‘ক্লিনিক্যাল’ কিংবা টেকনিকের দিক থেকে নিখুঁত দলের মুখোমুখিও হয়নি। ফাইনালটা তাদের জন্যও নতুন চ্যালেঞ্জ, সেই সঙ্গে স্নায়ুচাপেরও।

Share this post

PinIt
scroll to top