কক্সবাজারে চুয়েটের আয়োজনে ৭ থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ECCE 2019 আর্ন্তজাতিক কনফারেন্স

2-1.jpg
বার্তা পরিবেশক(৬ ফেব্রুয়ারি) :: চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল(ইসিই) অনুষদ-এর উদ্যোগে ৭ থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পর্যটন নগরী কক্সবাজারে দ্বিতীয়বারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘‘International Conference on Electrical, Computer and Communication Engineering (ECCE 2019) ’’ শীর্ষক আর্ন্তজাতিক কনফারেন্স তিনদিনব্যাপী এই আর্ন্তজাতিক কনফারেন্সে বাংলাদেশ এবং বিভিন্ন দেশ থেকে ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক, কম্পিউটার সায়েন্স, টেলিকমিউনিকেশন প্রভৃতি বিষয়ে শীর্ষস্থানীয় একাডেমিশিয়ান, সায়িন্টিস্ট, রিসার্চার, স্কলারস, ডিসিশন মেকার্সগণ অংশ নেবেন।
এ উপলক্ষে এক সাংবাদিক সম্মেলন অদ্য ৬ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কনফারেন্সের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক।
তিনি বলেন, চুয়েট তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল বিষয়ে শিক্ষা এবং গবেষণায় নানা অগ্রগতি লাভ করেছে। এই চুয়েটেই নির্মিত হচ্ছে দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের প্রথম চুয়েট আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর। এটি ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে এবং এখাতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে মাইলফল হিসেবে থাকবে। আমরা এ অগ্রযাত্রা ধরে রাখার অংশ হিসেবে বিভিন্ন জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক সেমিনার/কনফারেন্সও নিয়মিতভাবে আয়োজন করছি। আসন্ন কনফারেন্সে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবসহ তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল  বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে।
তিনি বলেন, কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী, এমপি।
৮ ফেব্রুয়ারি, সন্ধ্যা ৬:৩০টায় সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের মাননীয় চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের গবেষক, প্রফেশনালরা এতে অংশ নিচ্ছেন। তিনদিনব্যাপী এই আর্ন্তজাতিক কনফারেন্সে এতে ৮টি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের কথা রয়েছে। বাইরের বিভিন্ন দেশ থেকে ৮১২টি রিসার্চ পেপার জমা পড়ে। এসেপ্টেড পেপার ২৭৩। রেজিস্ট্রার্ড পেপার ২৫০। এর মধ্যে ১২৭টি ওরাল প্রেজেন্টেশন এবং ১২৩টি পোস্টার প্রেজেন্টেশন। তাঁদের মধ্যে ৫জন জন কী-নোট স্পিকার এবং ৩ জন ইনভাইটেড স্পিকার অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন কনফারেন্সের আয়োজক কমিটির সেক্রেটারি অধ্যাপক ড. রুবাইয়াৎ
তানভীর হোসেন, চুয়েটের আইআইসিটি-এর পরিচালক অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান, সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মীর মু. সাক্বী কাওসার, সহকারী রেজিস্ট্রার ফজলুর রহমান। কনফারেন্সে স্পন্সর হিসেবে থাকছে UGC, AKS, DPDC,DESCO,RE,SEPERSIGN CABLES, Synesid IT,BTCL, RPCL । টেকনিক্যাল কো-স্পন্সর: IEEE

Share this post

PinIt
scroll to top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno