izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

পেকুয়ায় ভূল চিকিৎসায় প্রসবকালীন সন্তানের মৃত্যুর অভিযোগ : সংকটাপন্ন মা

dead-baby-hospital.jpg

মোঃ ফারুক,পেকুয়া(১৩ ফেব্রুয়ারী) :: কক্সবাজারের পেকুয়ায় ভূল চিকিৎসায় গর্ভজাতকালীন সন্তানের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মা পপি অাকতারকে সংকটাপন্ন অবস্থায় চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সে বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারাইয়্যাকাটা এলাকার মোঃ রহিমের স্ত্রী।

বুধবার দুপুরে পেকুয়া প্যান ইসলামিক হাসপাতালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

ভুক্তভোগির পরিবার ক্ষিপ্ত হয়ে বিকালে হাসপাতালে ঘেরাও করলে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদেরকে নিভৃত করেন।

পপি অাকতারের স্বামী মোঃ রহিম বলেন, অামার স্ত্রীর প্রসব বেদনা প্রকঠ হলে সকালে পেকুয়া বাজারস্থ প্যান ইসলামিক হাসপাতালে ভর্তি করাই। ডাক্তার না পেয়ে স্ত্রীকে অন্যত্র নিয়ে যেতে চাইলে নার্স সামারু বেগম অভয় দিয়ে বলেন তিনি ডেলিভারি করতে পারবেন। তিনি সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২পর্যন্ত সন্তান প্রসব করার জন্য জোরপূর্বক চেষ্টা করেন।

সেই সময় অাবারো স্ত্রীকে অন্যত্র নিয়ে যেতে চাইলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, এ সন্তান অামি ভূমিষ্ট করতে না পারলে অার কেউ পারবেনা। সর্বশেষ অামার স্ত্রীর গর্ভ থেকে সন্তান বের করার সময় মাথা থেতলে দেন। এক পর্যায়ে সন্তান নার্সের সামনে মৃত্যু বরণ করেন। মৃত সন্তান স্ত্রীকে অাটকিয়ে রেখে ৩হাজার টাকা অাদায় করেন। বিয়ের ৫বছর পর অামার স্ত্রী সন্তান ধারণ করেছেন। তাকে হত্যা করা হয়েছে। অামি এর বিচার চাই।

চমেক হাসপাতাল থেকে মোঠোফোনে পপি অাকতারের দেবর মোঃ অাজিজ বলেন, অামার ভাবির অবস্থা খুব খারাপ। প্রচুর রক্তক্ষরন হয়েছে। রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ৫ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত তার অবস্থা খুব খারাপ।

এবিষয়ে জানতে চাইলে নার্স সামারু বেগগম বলেন, গর্ভের বাচ্চাটি নরমাল ডেলিভারি হয়। পানি শূন্যতার কারণে বাচ্চার মৃত্যু হয়। চিকিৎসার কোন দ্রুটি ছিলনা।

প্যান ইসলামিক হাসপাতালের পরিচালক বেলাল উদ্দিন বলেন, বাচ্চা ডেলিভারি করার নিয়ম অামাদের হাসপাতালে নাই। তারপরও নার্স সামারু ডেলিভারি করেছে এঘটনায় তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri