পেকুয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে জাহাঙ্গীর আলমের আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু

-ছবি.jpg

মোঃ ফারুক,পেকুয়া(১মার্চ) :: পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পেকুয়া উপজেলা থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনী ভোট যুদ্ধে নেমে পড়েছেন যুবলীগের সভাপতি সদ্য সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম। শুক্রবার (১ মার্চ) নির্বাচনী প্রচারণার কার্যক্রম শুরু করেন।

তিনি জুমা পরবর্তি প্রথমে পেকুয়া সদর শেখের কিল্লা ঘোনাস্থ পারিবারিক মসজিদে জুমার নামাজ অাদায় শেষে দাদা দাদী ও অাত্বীয় স্বজনের কবর জিয়ারত
করেন। ওখান থেকে দুপুর ২টায় পেকুয়ার অবিসংবাধিত নেতা উপজেলা অা’লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম ছাদেকুর রহমান ওযারেছির কবর জিয়ারত করেন। জিয়ারত শেষে বারবাকিয়া বাজার ষ্টেশন এলাকায় স্থানীয় ব্যবসায়ী ও সাধারণ জনগণকে সাথে নিয়ে গণসংযোগ করেন।

বিকেল ৩টায় পেকুয়া সদর বাঘগুজরা এলাকায় জেলা অা’লীগের সাধারণ সম্পাদক
কক্সবাজার পৌর মেয়র মুজিবর রহমানের সাথে পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন।
পরে বাঘগুজরা সাকোর পাড় ষ্টেশনে অা’লীগ কার্যালয়ে অা’লীগ ও সহযোগি
সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

এদিকে বাংলাদেশ অা’লীগ থেকে নৌকার মনোনয়ন না পাওয়ায় দলীয় নেতাকর্মী ও
কর্মী সমথর্করা কলা গাছ রোপন করে প্রতিবাদ শুরু করে। স্বতন্ত্র প্রার্থী
হিসাবে নির্বাচন করার জন্য সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে দলীয় নেতাকর্মীরা
মাঠে নেমে পড়ে। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে
মনোনয়নপত্র ক্রয় করেন। গত ২৮ফেব্রুয়ারি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে
জাহাঙ্গীর অালমের মনোনয়ন বাছাই উত্তীর্ণ হওয়ার পর থেকে সাধারণ ভোটার ও
তার সমর্থকরা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেন।

তার ফলশ্রুতিতে শুক্রবার নিবার্চনী প্রচারণা শুরু করলে স্থানীয় জনগণের
মাঝে ব্যাপক সাড়া মেলে।

বারবাকিয়া বাজারের ব্যবসায়ী নুরুল হোছাইন, ফরিদুলসহ অারো কয়েকজন বলেন,
নৌকার ১নং দাবিদার ছিল জাহাঙ্গীর অালম। তিনি তৃণমূলের অনেক প্রিয়। রয়েছে
শক্তিশালী সংগঠন। এছাড়াও সাধারণ পুরুষ মহিলা ভোটারের কাছে ব্যাপক
জনপ্রিয়তা রয়েছে। তাকে নৌকা না দেওয়ায় অামরা হতাশ হলেও স্বতন্ত্র
প্রার্থী হিসাবে তার বিজয় শতভাগ নিশ্চিত। যদি নির্বাচনে কোন ধরণের অনৈতিক
প্রভাব না পড়ে। অার অনৈতিক হস্তক্ষেপ করতে চাইলে তার কঠোর ভাবে দমন করা
হবে।

গণসংযোগকালে জাহাঙ্গীর অালম বলেন, অামি পেকুয়াবাসীর দোয়া অার ভালবাসায়
জাহাঙ্গীর থেকে বিপুল ভোটে জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি। অামি
কৃষকের সন্তান। সাধারণ জনগণ অামার শক্তি। তাদেরকে নিয়ে অাগামী ২৪ মার্চ
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিজয় নিশ্চিত করবো ইনশাল্লাহ।
তাতে সাধারণ ভোটারের ভয় পাওয়ার কোন কারণ নাই।

এদিকে জেলা অা’লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবর রহমানের সাথে সৌজন্য
সাক্ষাতে জাহাঙ্গীর অালমকে অাশ্বস্ত করে বলেন, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের ভোট
যুদ্ধে সব প্রার্থী অা’লীগের। সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে ভোট হবে পেকুয়ায়।

গণসংযোগকালে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা অা’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অাবুল শামা শামীম, মগনামার সাবেক
চেয়ারম্যান অা’লীগ নেতা ইউনুছ চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি শফিউল
অালম, টইটং যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাচ্ছু মিয়া, ছাত্রলীগের
যুগ্ম-সম্পাদক ওসমান সরওয়ার বাপ্পি, যুবলীগ নেতা রেজাউল করিম, সাবেক
ইউপি সদস্য মোঃ করিম, যুবলীগ নেতা জয়নাল অাবদীন, হারুণুর রশিদ, অানসার
উদ্দিন, ব্যবসায়ী নেতা দিদারুল ইসলাম, ব্যবসায়ী মোঃ অাজমগীরসহ দুই শতাধিক
কর্মী সমর্থক।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri