কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ মন্দিরে অধ্যক্ষ উপান্ডিতা মহাথের’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া শুরু

IMG_9802.jpg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি(৮ মার্চ) :: কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ মন্দির প্রাঙ্গনে দুইদিন ব্যাপী অগ্গমেধা ক্যাং এর অধ্যক্ষ প্রয়াত উপান্ডিতা মহাথের’র দুইদিন ব্যাপী অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে নেয়া হয়েছে ব্যাপক কর্মসূচী।

কর্মসূচীর প্রথমদিন শুক্রবার (৮ মার্চ) সকাল ৮টায় উপান্ডিতা মহাথেরোর পবিত্র শবদেহ চেংক্যাং পূজা মঞ্চে স্থানান্তর করা হয়। এরপর উত্তোলন করা হয় জাতীয় ও ধর্মীয় পতাকা।

এছাড়া ত্রিপিঠকের মঙ্গলবানী পাঠ, নৃত্য গীতের মাধ্যমে বন্দনা, সংঘ মন্ডলীকে ছোঁয়ে নিবেদন, কাতালা নৃত্য (ছেইং) ও ধর্মদেশনা অনুষ্ঠিত হয়। রাতে পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

কাতালা নৃত্যে শহরের মাছবাজার রাখাইন পাড়া থেকে ১টি, ক্যাং পাড়া থেকে ২টি, বান্দরবানের লামা থেকে ২টি, নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে ২টি ও রোয়াংছড়ি থেকে ২টিসহ মোট ৯টি অভিজ্ঞ দল অংশ নেয়। বিকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অনুষ্ঠানে ধর্মপ্রাণ হাজারো মানুষের ঢল নামে।

এতে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের লোকজন ছাড়াও অন্যান্য ধর্মের মানুষও অংশ গ্রহণ করেছে। ফলে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্তে পরিণত হয়। অনুষ্ঠান ঘিরে ছিল ব্যাপক নিরাপত্তা। পুলিশের পাশাপাশি নিয়োজিত ছিল শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক।

শনিবার অনুষ্ঠানের সমাপনী হবে। এই দিনের কর্মসূচীতে রয়েছে সংঘ মন্ডলীকে প্রাতঃরাশ নিবেদন, নৃত্য গীতের মাধ্যমে বন্দনা, সংঘ মন্ডলীকে ছোঁয়ে নিবেদন, পূজার্থী, পূণ্যার্থী ও দর্শনার্থীদের মধ্যাহ্নভোজন, কাতালা নৃত্য, উৎসর্গবাণী পাঠ ও উপান্ডিতা মহাথেরোর পবিত্র শবদেহকে অগ্নিদাহের মাধ্যমে অস্তিম বন্দনা।

অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সভাপতি মংক্য এ, সাধারণ সম্পাদক ক্যাছিং উ ও সহ সাধারণ সম্পাদক মং ওয়া নাইন বলেন, ২০১৮ সালের ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অগ্গমেধা ক্যাং এর অধ্যক্ষ উপান্ডিতা মহাথের এর মহাপ্রয়াণ হয়।

তার দেহাবশেষের অন্তেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের প্রথম দিন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সমাপনী অনুষ্ঠান ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্য, সম্প্রীতি ও সুচারুভাবে সম্পন্ন করতে সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি করছি।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri