নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্ঘুম প্রচারণায় ব্যস্ত ১০ প্রার্থী

1-2.jpg

আবদুল হামিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি(১৪ মার্চ) :: নাইক্ষ্যংছড়িতে আগামী ১৮ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা নির্বাচন। এ নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছে প্রার্থীরা।

সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চায়ের দোকান থেকে শুরু করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অফিস পাড়া, রাস্তাঘাটে, বিভিন্ন হাট-বাজারে, স্কুল মাঠে সর্বত্র চলছে প্রার্থীদের জমজমাট প্রচার প্রচারণা।

ফেস্টুন, পোস্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে সমগ্র উপজেলা। এছাড়াও মাইকে বিভিন্ন ধরনের গান বাজনার মাধ্যমে চলছে জোর প্রচার প্রচারণা। উপজেলার বাইশারী, দোছড়ি, সোনাইছড়ি, ঘুমধুম ও নাইক্ষংছড়ি সদরসহ ৫ টি ইউনিয়নে প্রার্থীরা এ নির্বাচনকে ঘিরে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

এতে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন ও ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৪ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জনসহ মোট ১০ প্রার্থী এ নির্বাচনকে ঘিরে গণসংযোগ আর প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছে।

উপজেলা আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অধ্যাপক মোঃ শফিউলাহ (নৌকা প্রতীক) তিনি নেতা কর্মীদের সাথে নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেন।

এসময় তিনি আগামী ১৮ই মার্চ নৌকা মার্কায় ভোট দিয় একটি বার হলেও নাইক্ষ্যংছড়িবাসীর সেবা করার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। নির্বাচিত হলে তিনি উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কর্মকা- বাস্তবায়ন করার ঘোষণা দেন।

অপর দিকে আওয়ামীলীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আবু তাহের কোম্পানী (মোটর সাইকেল প্রতীক) ও নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট চেয়ে নির্ঘুম রাত কাটিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।

আর এক প্রার্থী চোচু মং মার্মা আবুহের কোম্পানীর পক্ষে কাজ করছে।

এছাড়া অধ্যক্ষ মোঃ ফরিদ (আনারস প্রতীক) ও নির্ঘূম প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। উপজেলা নির্বাচনে চার জন প্রার্থী থাকলেও মূলত তৃণমূল পর্যায়ে নৌকা এবং মোটরসাইকেলের সাথে দ্বিমুখী লড়াই জমে উঠছে।

ভাইস-চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মওলানা সাহজান কবির ( টিয়া পাখী) মংলা মার্মা ( টিওউবল) মোঃ ইমরান মেম্বার (তালা) ও জহির উদ্দিন (চশমা) প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। তবে এ চার প্রার্থীর মধ্যে টিয়া পাখী, টিওউবল ও তালা প্রতীকের সাথে মুলত লড়াই জমেঠেছে।

মাহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ওজিফা খাতুন রুবি (কলস) হামিদ চৌধুরী ( ফুটবল) শামিমা আক্তার প্রজাপ্রতি নিয়ে লড়ছেন। তাদের মধ্যে প্রজাতি ও ফুটবল প্রতীকের সাথে দ্বিমুখী চালছে লড়াই।

এবারের নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও তারা কিছুটা কৌশলে নিরব রয়েছেন। এছাড়া সীমান্তবর্তী এ উপজেলার চেয়ারম্যানের পাশা-পাশি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছে। নাইক্ষ্যংছড়িতে মোট ভোটার সংখ্যা ৩৭ হাজার ৪শত ৯২ জন। আগামী ১৮ই মার্চ নির্বাচন অনুষ্টিত হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno