izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

চকরিয়ায় জিন্মিদশা থেকে স্কুল শিক্ষার্থী উদ্ধার

Chakaria-Picture-18-03-19.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৮ মার্চ) :: চকরিয়া উপজেলার পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়নে অপহরণের তিনঘন্টা পর জনগনের সহায়তায় পুলিশ জিন্মিদশা থেকে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়–য়া স্কুলশিক্ষার্থী আবু হানিফকে (১২) উদ্ধার করেছে।

বাড়ি থেকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে ওই শিক্ষার্থী গত সোমবার সকালে পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়নের দরবেশকাটা বড় মসজিদ এলাকায় অপহরণের শিকার হন।

অপহৃত হানিফ ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের দরবেশকাটা এলাকার মোহাম্মদ এহেছানের ছেলে। তাকে উদ্ধার করা হয় একই ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ড থেকে। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর পরিবার থেকে চকরিয়া থানায় ৫জনের নাম উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীর বাবা মোহাম্মদ এহেছান তাঁর ছেলে আবু হানিফ স্থানীয় দরবেশকাটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত। গত সোমবার ১১ মার্চ সকালে হানিফ বাড়ি থেকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে একদল দুর্বৃত্ত তাকে কৌশলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের পর তাকে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে বেধম মারধর করে।

শিক্ষার্থীর বাবা এহেছানের অভিযোগ, পূর্বশত্রুতার জের ধরে একই এলাকার মৃত আবু তালেকের ছেলে মৌলভী রাসেল, মৃত মোফাজ্জলের ছেলে সাইফুল হক, তার ছেলে মো: তৌহিদ, শহিদ ও আবুল কালামসহ অজ্ঞাত লোকজন পূর্বপরিকল্পিতভাবে অপহরণের ঘটনাটি সংগঠিত করেছে। তাদের নামে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

থানায় অভিযোগ দেয়ার পাশাপাশি বিষয়টি পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের আবু ছালেকের মাধ্যমে শিশুটির বাবা এহেছান পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাকের আহমদকে অবহিত করেন। এরপর প্যানেল চেয়ারম্যান ঘটনাটি বদরখালী পুলিশ ফাঁিড়র আইসি এসআই মোহাম্মদ ইসমাইলকে জানান।

মোহাম্মদ এহেছান বলেন, অপহরণের প্রায় তিনঘন্টা পর এদিন বেলা ১১টার দিকে এসআই মো.ইসমাইলের নেতৃত্বে পুলিশের একটিদল পরিষদের চৌকিদার আবদুস শুক্কুর ও কলিমসহ স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তার ছেলে হানিফকে একই ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ড থেকে উদ্ধার করে। তবে ওইসময় ঘটনায় জড়িতরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

Share this post

PinIt
scroll to top