izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

পেকুয়ায় মগনামাতে ওয়াসিম বিষে নৌকাতে নেই আ’লীগ

upozila-election-2019-coxsbazar-Alg-noka.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(১৮ মার্চ) :: পেকুয়ায় মগনামাতে ওয়াসিম বিষে নৌকার পক্ষে নেই আ’লীগ। দেশের কুখ্যাত রাজাকার যুদ্ধাপরাধী মৃত্যুদন্ড কার্যকর মীর কাসেম আলীর বিশ্বস্ত সহচর শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম মগনামায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ধানের শীষ প্রতীক থেকে ওয়াসিম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এক দিকে যুদ্ধাপরাধীর সহচর অন্যদিকে দেশের অন্যতম রাজনৈতিক দল পেকুয়া উপজেলার আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক এ দু’মেরুকরনে তার রাজনৈতিক উত্তান।

চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে মগনামায় আ’লীগ নিধনে মহাযজ্ঞে ব্যস্ত হয়েছেন এ ওয়াসিম। গত তিন বছরের ব্যবধানে তার নেতৃত্বে মগনামায় একটি স্বশস্ত্র বাহিনী গঠিত হয়েছে। মগনামায় ওই বাহিনীর নাম ওয়াসিম বাহিনী। ছাত্রদল, যুবদল, শিবির সাবেক ও বর্তমান পদ পদবী ধারীদের নিয়ে এ বাহিনীর মগনামায় দারুন প্রতাপ ও শক্তিধর হয়েছে। বিএনপি ও জামায়াত ঘরানার শক্তিধর ক্যাডারদের নিয়ে ওয়াসিম বাহিনীর অস্তিত্ব।

ওই বাহিনীর দাপটে মগনামায় আ’লীগ অসহায়। ওয়াসিম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এ ইউনিয়নে আ’লীগের তৃনমুল শক্তি হ্রাসকরন হয়েছে। দখল বেদখল আয়-রোজগার সব কিছুতেই ওয়াসিম বাহিনী মগনামায় একক নিয়ন্ত্রিত।

সামাজিক ঝুঁকি হ্রাসকরনে সরকারের অংশীদারিত্বমুলক কার্যক্রম থেকে আ’লীগ সমর্থিতদের মগনামায় অবজ্ঞা ও বঞ্চিত করা হয়েছে। দারিদ্র বিমোচন খাতে ওয়াসিমের ইউপিতে ক্ষমতাসীন দল নেতা-কর্মীদের নেই কোন সম্পৃক্ততা। ভিজিডি, ভিজিএফ, বয়ষ্কভাতা, পঙ্গুভাতা, বিধবা ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতাসহ সকল রাস্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা থেকে আ’লীগের কোন কর্মীকে ঠাই দেওয়া হয়নি।

এ সব বিএনপি ও জামায়াত পন্থীদের মাঝে বিলি হয়েছে। রিলিফ বিতরনে উপকারভোগীর তালিকায় কোন আ’লীগকে দেখলে ওয়াসিম চরম ক্ষেপে যান। এমন অভিযোগও আছে রিলিফ নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় পরিচিত আ’লীগ কর্মী হওয়ায় তার কাছ থেকে রিলিফের চাউল ও গম কেড়ে নিয়েছে।

গত তিন বছরের ব্যবধানে মগনামায় ওয়াসিম বাহিনী বহু আ’লীগকে এলাকা ছাড়া করে। মগনামায় ফুলতলা ষ্টেশনে আফজলিয়াপাড়ার স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীদের নিয়ে অনেক আ’লীগকে হামলা ও জখম করে। ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান খাইরুল এনামকেও ফুলতলা স্টেশনে তার বাহিনী গুলি ছোড়ে।

অল্পের জন্য প্রানে রক্ষা পেয়েছিলেন আ’লীগের এ নেতা। ফুলতলা ষ্টেশনে ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ারুল আজিম চৌধুরী বাবুলকে একাধিকবার হামলা চালায় ওই বাহিনী। তার বাড়িতেও হামলা চালায়।

গুলিও ছোড়ে ওই বাহিনী। বাবুল বাদী হয়ে মামলা আছে। স্বেচ্ছাসেবকলীগ ইউনিয়ন সভাপতি সোলতান মোহাম্মদ রিপনকে ওয়াসিম বাহিনী কুপিয়ে জখম করে। অনেক দিন পঙ্গু ছিল ওই নেতা।

এ ঘটনায় মামলা আছে। দক্ষিন মগনামায় ২ বছর আগে আনোয়ারসহ আ’লীগ কর্মীদের বাড়িতে গুলি ছোড়ে। মিয়াজিপাড়ায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আবুল হাসেমকে অস্ত্র দিয়ে পুলিশে দেয়। হাসেম ওয়াসিম বিরোধী ছিল। তাকে অস্ত্র দিয়ে জেলে পাঠায়।

শরতঘোনায় আ’লীগ কর্মী লিয়াকত আলীকে একাধিক মামলা দিয়ে দেশ ছাড়া করে। বাঁচতে লিয়াকত আলী ওই চেয়ারম্যানের সাথে আপোষরফা করে। কিছুদিন আগে সালাহ উদ্দিন নামক এক যুবলীগ কর্মীকে অস্ত্র দিয়ে পুলিশে দেয় ওয়াসিম। বেদেরবিলপাড়ার মাহামুদুল হকের ছেলে সালাহ উদ্দিন অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের সন্তান।

এ ঘটনায় দক্ষিন মগনামায় আ’লীগ ওয়াসিমের বিরুদ্ধে মিছিল করে। কাজী বাজারে ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক মানিকের সাথে সালাহ উদ্দিন গংদের হাতাহাতি হয়। মানিক ওয়াসিমের অনুগত। এস,আলমের জমি নিয়ন্ত্রন করেন মানিক।

এ ঘটনায় ওয়াসিম সালাহ উদ্দিনকে পরিকল্পিত অস্ত্র দিয়ে জেলে পাঠায়। গত ২ মাস আগে যুবলীগ নেতা শামশুল আলম ও উপজেলা ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুুর রহমান সোহেলকে ফুলতলায় হামলা চালায়। ওয়াসিমের অনুগত ক্যাডাররা এ ঘটনা ঘটায়।

পুলিশ এখনো মামলা নেয়নি। এমপির সংবর্ধনা অনুষ্টানে ছাত্রদল যুবদল সহ ওয়াসিম ক্যাডাররা হামলা চালায়। এ সময় ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা এমপির উপস্থিতিতে মারপিটের শিকার হন। ইউএনও মাইক্রোফোনে দু:খ প্রকাশ করেছেন অনুষ্টানে।

বর্তমানে ওয়াসিম নিজকে স্বঘোষিত আ’লীগ দাবী করছেন। গুটিকয়েক নেতা তাকে নেপথ্যে থেকে সহায়তা করছেন। দল বিএনপি চিন্তা চেতনা মুক্তিযোদ্ধের বিরোধী। আদর্শ জিয়া ও গোলাম আজমকে নিয়ে। অথচ ওই ব্যক্তি সংসদ নির্বাচনের পর থেকে মগনামায় ক্ষমতাসীন দলের একছত্র নিয়ন্ত্রক।

ইউনিয়ন আ’লীগের কোন সাংগঠনিক কার্যক্রমকে তোয়াক্কা করা হচ্ছে না। সব কিছু ওয়াসিমকে সপে দেয়া হয়েছে। জিয়ার ওই সৈনিক এখন আ’লীগের নীতি নির্ধারক। মগনামায় তার এহেন কর্মকান্ডে আ’লীগ চরমভাবে হতাশ।

আ’লীগকে বঞ্চিত রেখে ওযাসিমকে উজ্জীবিত করায় চরমভাবে হতাশা দেখা দেখা দেয় মগনামায় ক্ষমতাসীন দলে। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ওয়াসিম দ্বন্ধে মাঠে নেই আ’লীগ। এর নেতিবাচক প্রভাব এ নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থীর উপর পড়ে। ওয়াসিম বিষে আ’লীগ মগনামাতে নৌকাতে নেই।

Share this post

PinIt
scroll to top