izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

ইত্তেফাক পত্রিকায় সাংবাদিক নিয়োগ প্রসঙ্গে মো. জুনাইদ এর বিবৃতি

Ittefaq-md-zonaid.jpg

বার্তা পরিবেশক(২১ মার্চ) :: দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় কক্সবাজার প্রতিনিধি নিয়োগ হয়েছেন মর্মে সায়ীদ আলমগীর নামে একজন নিজেকে মহান সাংবাদিক দাবি করে সাধু সন্যাসী সেজে পত্রিকায় বিবৃতি দিয়েছেন। এই প্রসঙ্গে আমি জানাতে চাই ৫ বছর আগে আমাকে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় কক্সবাজার প্রতিনিধি হিসাবে নিয়োগ দেয়া হয়।

নিয়োগপত্রে বলা হয়েছিল প্রতিষ্ঠানের নিয়ম মোতাবেক আমাকে বেতন ভাতা দেয়া হবে। কিন্তু অত্যন্ত দু:খের বিষয় বিগত ৫ বছরে আমাকে বেতন ভাতা হিসাবে এক টাকাও দেয়া হয়নি। উপরন্তু বিজ্ঞাপনের কমিশন হিসাবে আমি পত্রিকার কাছে পাওনা রয়েছি লক্ষাধিক টাকা।

এই অবস্থায় সম্প্রতি আমি পাওনা বকেয়া বেতন ভাতা দাবি করলে ইত্তেফাকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেন- ইত্তেফাকে কাজ করলে বেতন ভাতা দিতে হয়না। উল্টো টাকা দিয়ে অনেকে কাজ করতে চায়। আমি এর প্রতিবাদ জানালে আমাকে অব্যাহতি দিয়ে সায়ীদ আলমগীর নামে ওই ব্যাক্তিকে কক্সবাজার প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

কাজের লোক দাবিদার ওই ব্যাক্তি গত কিছুদিন থেকে বিনা বেতনে কাজ করবেন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ইত্তেফাকে তদবির করছিলেন। একই ভাবে এর আগে আরো কয়েকটি পত্রিকায় বিনা বেতনে কাজ নিয়েছিলেন তিনি। কোন পত্রিকায় এক মাসের বেশি টিকতে পারেনি এই মহান (?) সাংবাদিক।

তার কাছে আমার প্রশ্ন- নিজেকে সাধু সন্যাসী বলে পত্রিকায় বিবৃতি দেন- মানিক মিয়ার আদর্শে গড়া ইত্তেফাক পত্রিকা আমার ৫ বছরের বেতন ভাতা দিচ্ছে না, তাঁর প্রতিবাদ না করে, উল্টো সেখানে বিনা বেতনে কাজ করতে রাজি হলেন? মহান সাংবাদিক সেজে বিনা বেতনে কাজ করবেন কোন উৎসব থেকে টাকা নিয়ে?

সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি- সাধু সন্যাসীদের দিয়ে বিনা বেতনে কাজ করান আমার আপত্তি নেই। কিন্তু আমার ৫ বছরের বকেয়া বেতন ভাতা অবশ্যই দিতে হবে। অন্যতায় এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে আদালতে যাব ইনশাআল্লাহ।

মোহাম্মদ জুনাইদ
প্রেস ক্লাব, কক্সাবাজার।

Share this post

PinIt
scroll to top