চকরিয়ায় জাইল্যার ঢালায় বাস ও মাইক্রোর সংঘর্ষে নিহত-৮ : আহত-২৫

Chakaria-Picture-28-03-2019-..jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(২৮ মার্চ) :: কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার উত্তর হারবাং আজিজনগর ও লোহাগাড়া উপজেলার চুনতীর সীমান্ত পয়েন্ট জাইল্যার ঢালা এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আটজনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে দুইজন নারী ও একজন শিশু রয়েছে। এ ঘটনায় দুইটি গাড়ির অন্তত ২৫জন যাত্রী কমবেশি আহত হয়েছেন।

আহতদেরকে চকরিয়া উপজেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার দিনগত রাত একটার দিকে মহাসড়কের ‘জাইল্যার ঢালা’ এলাকায় ঘটেছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। দুর্ঘটনার পরপর চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের একটিদল ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করেন।

তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন বলে নিশ্চিত করেছেন হাইওয়ে পুলিশের দোহাজারী থানার ওসি মো.মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, নিহত আটজনের মধ্যে সাতজনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

নিহতরা হলেন কক্সবাজার সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের ছনখোলা নয়াপাড়া গ্রামের মোহাম্মদ জিসানের স্ত্রী তছলিমা আক্তার (২০), মেয়ে সাদিয়া আক্তার (২বছর), একই গ্রামের নুরুন্নবীর স্ত্রী হাসিনা মমতাজ (৪৫), লোহাগাড়া উপজেলার সিকদারপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে আফজাল হোসেন সোহেল (৩০), কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের জাবের আহমদের ছেলে আবদুস শুক্কুর (২৮), বাঁশখালী উপজেলার শেখেরখিল এলাকার মো.ছিদ্দিকীর ছেলে আবু সায়েম (২২), চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের উত্তর মেধাকচ্ছপিয়া এলাকার ঠান্ডু মিয়ার ছেলে নুরুল হুদা (২৫) ও আনোয়ারা উপজেলার বাসিন্দা মৃত জালাল আহমদের ছেলে আমির খসরু (২৫)।

হাইওয়ে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার রাত একটার দিকে কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা রিলাক্স পরিবহনের একটি চেয়ার কোচ কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জাইল্যার ঢালা এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে চকরিয়াগামী একটি হাইয়েস মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুসহ আটজন নিহত হন।

দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের আইসি (ইনর্চাজ) মো.সাইদুল ইসলাম বলেন, বুধবার রাত পৌনে একটার দিকে দুইটি গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা সবাই মাইক্রোবাসের যাত্রী।

তিনি বলেন, লাশ উদ্ধারের পর আইনী প্রক্রিয়া শেষে  দুপুরে নিহত আটজনের মধ্যে প্রথমে সাতজনের মরদেহ ও পরে পরিচয় সনাক্ত হওয়ায় গতকাল বিকালের দিকে আমির খসরু নামের যুবকের মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত দুইটি গাড়ি চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁিড়তে রয়েছে।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri