ঈদগড়-ঈদগাওঁ-বাইশারী সড়কে রাত দশটা পর্যন্ত গাড়ী চলাচলের দাবী যাত্রীদের

baishari-bazar-coxbangla.jpg

কামাল শিশির,ঈদগড়(২ এপ্রিল) :: কক্সবাজার রামু উপজেলার ঈদগড়-ঈদগাওঁ-বাইশারী সড়কে রাত ৮ টার পরে নেমে আসে ভুতুড়ে পরিবেশ। যুগ যুগ ধরে এ অবস্থা বিরাজমান থাকলেও পরিত্রানের কোন সম্ভাবনা নেই। কবে নাগাদ এর থেকে বাচঁবে এলাকার জনগণ তাও জানেনা কেউ। বর্তমান ডিজিটাল এ বাংলাদেশে এ পরিস্থিতি মানতে নারাজ এলাকাবাসী। নিরাপত্তার অজুহাতে দিনের পর দিন,মাসের পর মাস, বছরের পর বছর,যুগের পর যুগ তথা যুগ যুগ ধরে ৩ ইউনিয়নের প্রায় লক্ষাধিক জনগণ এ নিয়ে বহু কষ্টে দিন কাটাচ্ছে।

মুল কথা হল সড়কে ডাকাতি,ছিনতাই, রাহাজানি ও অপহরণ রোধে কয়েক বছর ধরে রাত টার পর গাড়ী চলাচল বন্ধ রেখেছে প্রশাসন। এলাকার লোকজন প্রতিদিন জেলা শহর কক্সবাজার, উপজেলা শহর রামুসহ উপশহর ঈদগাওঁতে বিভিন্ন কাজে কর্মে গেলে ফিরতে হয় রাত ৮টার মধ্যে।

শত শত লোক ৮টার মধ্যে ফিরতে পারেনা। সন্ধ্যা নামলেই রাত টা বেজে যায়। ৮টার মধ্যে দৈনন্দিন কাজ শেষ করতে অনেকেই পারে আবার অনেকেই পারেনা। যারা পারেনা তাদেরকে আত্মীয় স্বজনের বাসায় বা রাস্তায় রাত পোহাতে হয়। শুধু তা নয় রোগিদের বেলায়ও একই অবস্থা। অনেক রোগিকে চিকিৎসার অভাবে মরতে হয়। আবার অনেকের আত্মীয় স্বজন শহরে থাকে। তাদের কোন সমস্যা হলে রাতে তাদের কাছে যাওয়া সম্ভব হয় না। সকালেই যেতে হয়।

ততক্ষণে সব শেষ হয়ে যায়। বিদেশ থেকে প্রবাসীরা আসতেও নানা সমস্যায় পড়ছে এ নিয়ম বলবৎ থাকায়। ব্যবসায়ীরা ঠিকমত ব্যবসা করতে পারছেনা। রোগিরা ঠিকমত ডাক্তার দেখাতে পারছে না। পান ব্যবসায়ীরা পড়ে আরো মহা বিপদে। গত কয়েক বছর ধরে এলাকায় বিভিন্ন আর্থীক কর্মসংস্থান গড়ে উঠলেও তারাও জেলা অফিস থেকে শাখা অফিসে ফিরতে পারে না এ নিয়মের কারণে।

শিক্ষকরা সকাল সকাল গাড়ী না পাওয়াতে সঠিক সময়ে ক্লাসে উপস্থিত হতে গিয়ে নানা সমস্যায় পড়ছে। কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা ঠিকমত কলেজে যেতে পারে না। এলাকার জীবন যাত্রার মান দিন দিন উন্নত হলেও এ রকম নিয়মের কারণে দিন দিন পিছিয়ে পড়ছে অন্যান্য এলাকা হতে এলাকা গুলো । বিয়ে শাদীর ব্যাপারেও এ নিয়মের কারণে নানা সমস্যা হচ্ছে। বলতে গেলে এটা একটা জাতীয় সমস্যা।

এ সমস্যা নিরসনে কারো মাথা ব্যাথা নেই। প্রশাসন থেকে শুরু করে সর্বস্তরের জনতার ঐক্য বদ্ধ প্রচেষ্টায় এ নিয়ম ভেঙ্গে সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সড়কে গাড়ী চলাচল অব্যাহত রাখা খুবই জরুরী হয়ে পড়েছে। অন্যতায় দিন বদলের এই সোনালী দিনে আধুনিকতার ছোঁয়া থেকে এলাকাগুলো পিছিয়ে পড়ার পাশাপাশি জন জীবনে অচলাবস্থা দেখা দিবে দিনের পর দিন। এলাকার সর্বস্তরের জনতা এ ব্যাপারে রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ লুৎফর রহমান ও জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেনের সু -দৃষ্টি কামনা করছেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri