কক্সবাজারের লিংরোডস্থ মেরিন সিটি এলাকা থেকে আবারও ইয়াবা সহ ৪ পাচারকারী আটক

Yaba-8500-pcs-dt-29-4-191.jpg

কক্সবাংলা রিপোর্ট(২৯ এপ্রিল) :: কক্সবাজার-চট্রগ্রাম সড়কের লিংরোডস্থ মেরিন সিটি কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থেকে শ্যামলী পরিবহণের একটি বাস তল্লাশী করে আবারও ইয়াবাসহ চার পাচারকারীকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫। এর আগে গত ২৭ এপ্রিল একইস্থান হতে ইয়াবা সহ ৩ মাদক পাচারকারীকে আটক করেছিল র‌্যাব-১৫।

২৯ এপ্রিল সোমবার রাত সাড়ে ১২টায় ৮৫০০ পিচ ইয়াবা সহ ৪ মাদক কারবারীকে আটক করা হয় বলে এক মেইল বার্তায় এ তথ্য জানায় কক্সবাজারস্থ র‌্যাব-১৫।

আটকরা হলেন,বাসের চালক ও চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার দূর্গাপুরের রমিজ উদ্দিনের পুত্র মো.হারুন (৩৫), বাসের হেলপার ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার গোপালপুরের ফুল মিয়ার পুত্র মো. হানিফ (২০), কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের কালিকসা এলাকার হোসেন আহমদের পুত্র মাহমুদুল হক (৩৮) ও খুলনার রুপসা থানার দেয়াড়া এলাকার মো. লতিফ শেখের পুত্র মো. হেলাল (২৫)।

এ ব্যাপারে কক্সবাজারস্থ র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, কক্সবাজার জেলার সদর থানাধীন কক্সবাজার বাস টার্মিনাল হতে বাসযোগে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক দ্রব্য (ইয়াবা) বহন করে চট্টগ্রামের দিকে আসছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৯ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টায় র‌্যাবের একটি দল লিংকরোডস্থ মেরিন সিটি কমিউনিটি সেন্টারের সামনে মহাসড়কে বিশেষ চেকপোষ্ট স্থাপন করে শ্যামলী গাড়ীটি তল্লাশী শুরু করে।

পরবর্তীতে আটক আসামীদের দেখানো মতে বাসের ভিতরের অংশের বাঙ্কারের নিচে ম্যাজিক লাইটের পার্শ্ব হতে মোট ৮,৫০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ৪২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।

তিনি আরও জানান,গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবা ও বাস পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ২৭ এপ্রিল মহেশখালীর মোঃ শাকের মিয়া (২৭), দরিয়া নগরের মোঃ হাসন (২০) এবং সদরের লাহারপাড়ার মোঃ আব্দুল জলিলকে(২৮) আটক করেছিল র‌্যাব-১৫ সদস্যরা।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri