izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে শিরোপা ম্যানসিটি না লিভারপুলের ?

Liverpool-vs-Manchester-city.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১২ মে) :: ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লিগটির নাম প্রিমিয়ার লিগ। চলতি মৌসুমে এসে এ কথাটি যেন আরো বেশি সত্য হয়ে সামনে এসেছে। জমে ওঠা প্রিমিয়ার লিগের মীমাংসা এখন শেষ দিনে এসে ঠেকেছে। আজকের শেষ লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে শিরোপা কার হাতে উঠছে। ম্যানচেস্টার সিটি ও লিভারপুল মাঝ মৌসুম থেকেই লড়াই জমিয়ে তুলেছে নিজেদের মধ্যে। যার শেষ ফলটা জানা যাবে আজ। আলাদা আলাদা ম্যাচে দুই দলই মাঠে নামবে।

তবে শিরোপার ব্যাটনটা আছে ম্যানসিটির হাতেই। আজকের ম্যাচে জিতলেই কোনো সমীকরণ ছাড়া চ্যাম্পিয়ন হবে সিটি। তবে ড্র করলে বা হেরে গেলেই বিপদ। সেক্ষেত্রে লিভারপুল যদি নিজেদের ম্যাচে জিততে পারে, তবে শিরোপা ঘরে তুলবে তারাই।

চলতি মৌসুমটা সিটি ও লিভারপুল দুই দলই কাটিয়েছে অপ্রতিরোধ্যভাবে। ৩৭ ম্যাচে ৩১ জয়, দুই ড্র ও চার হারে সিটির পয়েন্ট ৯৫। সমান ম্যাচে ২৯ জয়, সাত ড্র ও এক হারে লিভারপুলের পয়েন্ট ৯৪। লিভারপুলের একমাত্র হারা ম্যাচটি ম্যানসিটির সঙ্গেই। মৌসুম শেষে সেই একমাত্র হারটিই হতে পারে ‘অল রেড’দের শিরোপা হারানোর একমাত্র কারণ। আজ রাতে অবশ্য সিটির ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে অ্যাওয়েতে। ব্রাইটনের মাঠে আতিথ্য নিতে যাবে তারা। তবে টানা ১৩ লিগ ম্যাচে জয় পাওয়া সিটির বিপক্ষে ব্রাইটন কতটা প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারবে, সে প্রশ্নও রয়ে যায়। যেহেতু লিগের শেষ ও শিরোপা নির্ধারক ম্যাচ, তাই এ ম্যাচে স্নায়ু পরীক্ষাটাও দিতে হবে পেপ গার্দিওলার দলকে। সেই পরীক্ষা উতরে যেতে পারলে বাকি কাজটা খুব সহজেই সারতে পারবে তারা।

তাই এ ম্যাচে সিটিকে খেলতে হবে বেশ সতর্ক হয়েই। এ ম্যাচের আগে শিরোপায় চোখ রাখা গার্দিওলা বলেন, ‘আমাদের যা করতে হবে সে বিষয়ে মনোযোগী হওয়াই ভালো। যদি আমরা জিততে পারি, তবে আমাদের অন্য কিছুর দিকে তাকাতে হবে না। এতদূর আসতে পারা স্বপ্নের মতো ব্যাপার। শুরুতে ৭ পয়েন্টে পিছিয়ে থাকার পর এতদূর আসতে পারব ভাবিনি। যদি আমরা পরপর শিরোপা জিততে পারি, তবে সেটা দারুণ হবে। কিন্তু তাতে খুব বেশি কিছু বদলাবে না। ব্যাপারটা হচ্ছে, আমরা মৌসুমটা অবিশ্বাস্যভাবে ভালো কাটিয়েছি।’

এদিকে সিটি পা ফসকালেই প্রস্তুত থাকবে লিভারপুল। সিটির চেয়ে তাদের মৌসুমটাও কম ভালো যায়নি। প্রত্যাবর্তনের অবিশ্বাস্য এক রূপকথা লিখে এখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠেছে তারা। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের ব্যাটনটা নিজেদের হাতে থাকলেও প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জয়ের সমীকরণ তাদের হাতে নেই। কেবল আজ যদি সিটি হোঁচট খায়, তবেই লিভারপুলের ভাগ্য খুলতে পারে, সেক্ষেত্রে অবশ্য নিজেদের মাঠে উলভারহ্যাম্পটনকে হারাতে হবে ইয়ুর্গেন ক্লোপের দলকে। এখন নিজেদের জয়ের পাশাপাশি লিভারপুলকে প্রার্থনা করতে হবে সিটির হার কিংবা ন্যূনতম একটি ড্রয়ের।

তবে লিভারপুলের কাজ হবে নিজেদের জয়টা ভালোভাবে সেরে রাখা। সেটি করার জন্য অ্যানফিল্ডে বার্সার বিপক্ষে আগের ম্যাচটিকেই অনুপ্রেরণা হিসেবে পাচ্ছে তারা। যেখানে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়েছে তারা। আজকের ম্যাচে লিভারপুলের হয়ে মাঠে ফিরছেন মোহাম্মদ সালাহ। তার ফেরাও বাড়তি শক্তি জোগাবে লিভারপুল শিবিরে।

এ ম্যাচ নিয়ে ক্লোপ বলেন, ‘ফুটবলের জন্য এটা অলৌকিক ঘটনার সপ্তাহ। এই সপ্তাহ এখনো শেষ হয়নি, রোববার এখনো হিসাব করা বাকি আছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘সবাই ধরে নিয়েছে আমরা উলভসকে হারাব এবং সিটি নিশ্চিতভাবে ব্রাইটনকে হারাবে। কিন্তু আমি মনে করি, ব্রাইটন এরই মধ্যে লিগে আর্সেনালের বিপক্ষে ম্যাচে চমক দেখিয়েছে (১-১ গোলে ড্র করেছে।) এখানে কোনো কিছুই নিশ্চিত না।’ এদিকে সেরা চারের লড়াইয়ে আগেই জায়গা নিশ্চিত চেলসির। বড় কোনো অঘটন না ঘটলে তাদের সঙ্গী হবে টটেনহাম।

বিবিসি, মার্কা, এএফপি

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri