ঈদগড়ে রমযানে অসহনীয় লোডসেডিংয়ে জনজীবন অতিষ্ঠ

loadsheding.jpg

মো: রেজাউল করিম, ঈদগাঁও(১৪ মে) :: ককসবাজার জেলার ঈদগড়ে বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার মাত্রা অতিরিক্ত হওয়ায় পবিত্র মাহে রমযান মাসে ধর্মপ্রাণ মুসলিমসহ এলাকার সর্বসাধারণ মানুষকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। পবিত্র রমযান মাসে বিদ্যুৎ সেবার মান যতটা আশা করেছিল তা না হওয়ায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানসহ এলাকাবাসী হতাশ হয়েছে।

বিদ্যুৎ এর অসহনীয় লোডশেডিং-এ অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। রোজাদারদের আশা ছিল বিদ্যুৎ এর লোডশেডিং থাকলেও হয়তো তারাবীর নামাজ ও রাতের সময় বিদ্যুৎ সেবার মান সহনীয় থাকবে। কিন্তু ঘন ঘন আসা যাওয়ার মধ্যে থাকে বিদ্যুৎ সেবার মান।

রমযানের শুরু থেকেই ঈদগড়ে চলতেই থাকে ভয়াবহ লোডশেডিং।এই প্রচণ্ড তাপদাহ গরমের দিনে সারাদিন রোজা রাখার পর তারাবির নামাজের সময় বা রাতে বিদ্যুৎ না থাকায় চরম কষ্ট পোহাতে হচ্ছে রোজাদার মুসল্লিদের,দিনে রাতে কত বার যে লোডশেডিং হয় তা হয়ত বিদ্যুৎ কতৃপক্ষও জানে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

পবিত্র রমজান মাসে রোজা সুষ্ঠ ভাবে পালন করার জন্য একটু হলেও বিদ্যুৎ সরবরাহের উন্নতি ঘটানোর জন্য ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা বিদ্যুৎ কতৃপক্ষের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন। বিদ্যুতের ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের কারণে ব্যবস্যা বাণিজ্যে ধ্বস ও বিভিন্ন কলকারখানা, ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিপনী বিতান, ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। এতে সাধারণ জনগণও ব্যাপক ক্ষতির শিকার হচ্ছে।

ঈদগড়বাসী আক্ষেপ করে প্রশ্ন করেন এ সময় সেচ ও ইরিগেশন মৌসুম নয় তাহলে এত ঘনঘন লোডশেডিং কেন। তার সাথে বিদ্যুৎ সেবার মান সহনীয় রাখার দাবি জানিয়েছে তারা।

লাগামহীন লোডশেডিং এর বিষয়ে স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ কতৃপক্ষের এক কর্মির সাথে কথা হলে তিনি বলেন,লাইনের সমস্যা হলে বা লাইনের কাজ করলে বিদ্যুৎ যায় ।তাছাড়া ২৪ ঘন্টা নিরবচ্ছিন্ন ভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেওয়া সম্ভব নয়।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri