কক্সবাজার সদর জালালাবাদে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে আহত-৫

sngrso.jpg

মোঃ রেজাউল করিম,ঈদগাঁও(১৪ মে) :: কক্সবাজার সদর জালালাবাদে জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে ভুক্তভোগীদের বন্দিদশা থেকে উদ্ধার করেন। ১৪ মে সকালে ইউনিয়নের পূর্ব লরাবাকে এ ঘটনা ঘটে ।

আহতরা হচ্ছেন উক্ত এলাকার মোঃ কালুর স্ত্রী আনোয়ারা বেগম, ছফর মিয়ার স্ত্রী সাবেকুন্নাহার, মৃত ওমর আলীর পুত্র নুরুল আজিম, মৃত বজল আহমদ এর পুত্র ছফর মিয়া এবং মৃত আবদুল গনির পুত্র শাহাবুদ্দিন।

এদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল চিকিৎসা করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র, পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বসতভিটা সংলগ্ন জমির মালিকানাকে কেন্দ্র করে উক্ত এলাকার সফর আলমের সাথে একই এলাকার হাবিবুল্লা গংয়ের বিরোধ চলে আসছিল। ঘটনাটি আদালত এবং ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের বিচারাধীন রয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে হাবিবুল্লাহ গং ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে উক্ত জমি জবর দখলের জন্য সীমানা প্রাচীর তৈরি করতে থাকে। ছফর আলম গং তাতে বাধা দিলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরকে ধাওয়া করে বসত করে অবরুদ্ধ করে রাখে । এ সময় ইটপাটকেল নিক্ষেপ, বসত ঘর ও আসবাবপত্র ভাঙচুর করা হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এ এস আই বিলাস ঘটনাস্থলে গিয়ে বন্দিদশা থেকে আহতদের উদ্ধার করেন। এ সময় তিনি বিবদমান পক্ষগুলোকে বুধবার সমঝোতা বৈঠকের কথা বলে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন।

এ ব্যাপারে ঘটনাস্থলে যাওয়া এসআই বিলাস এর বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশনা মতে ইনচার্জ এসআই আসাদুজ্জামান এর নির্দেশ মতে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় শতাধিক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে অবরুদ্ধদের উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে প্রেরণের পরামর্শ দেনসংঘটত ঘটনায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ভুক্তভোগীরা। তবে এ ব্যাপারে অন্য পক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri