izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

পিএসজি ছাড়ার ইঙ্গিত দিলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে !

mbappe-psg.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২১ মে) :: আসন্ন গ্রীষ্মে ‘গ্যালাকটিকোস’ গঠন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। স্প্যানিশ জায়ান্টরা নাকি এরই মধ্যে এমবাপ্পের জন্য পিএসজিকে ২৪ কোটি পাউন্ডের প্রস্তাব দিয়েছে। এ অর্থে তাকে কিনলে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়বে মাদ্রিদ জায়ান্টরা। ফুটবলের বিশ্বরেকর্ড ১৯ কোটি ৯০ লাখ পাউন্ড বা ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা থেকে ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ড নেইমারকে কিনে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিল পিএসজি। এবার তাদের এক খেলোয়াড়কে কিনেই নতুন রেকর্ড গড়তে পারে রিয়াল।

রিয়াল মাদ্রিদ স্কোয়াডে আসতে পারে বড় পরিবর্তন। ওয়েলস উইঙ্গার গ্যারেথ বেল, কলম্বিয়ান তারকা হামেশ রদ্রিগেজ, স্প্যানিশ খেলোয়াড় ইসকো ও ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা বিদায় নিতে পারেন। তাদের জায়গায় আসবে নতুন একঝাঁক খেলোয়াড়। ম্যানইউর পল পগবা, চেলসির এডেন হ্যাজার্ড, টটেনহামের ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনরা রয়েছেন রিয়ালের রাডারে। তবে জিদানের ১ নম্বর টার্গেট এমবাপ্পে। পিএসজির গোলমেশিনকে কিনতে পারলে আক্রমণভাগ নিয়ে জিদানের দুশ্চিন্তা অনেকখানি লাঘব হয়ে যাবে। এখন দেখার বিষয়, স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুকেই নিজের পরবর্তী ঠিকানা হিসেবে বেছে নেন কিনা ২০ বছরের ফুটবল বিস্ময়।

তাই ২০১৯-২০ দলবদলে  কিলিয়ান এমবাপ্পের মতো সুপারস্টার সবচেয়ে বেশি আলোচনােই থাকবেন। রোববার ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যে বিবৃতি দিয়েছেন ২০ বছর বয়সী ফরওয়ার্ড, তাতে তাকে ঘিরে রীতিমতো উন্মাদনাই তৈরি হতে চলেছে।

ইউরোপ মহাদেশব্যাপী তিনি এ বার্তাটিই দিলেন, প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) বাইরেই তার ভবিষ্যৎ নিহিত রয়েছে। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের বর্ষসেরা খেলোয়াড় ও বর্ষসেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের জোড়া পুরস্কার গ্রহণের পর ফরাসি তারকা বলেন, ‘অবশ্যই এ মৌসুমে অনেক বেশি হতাশা ছিল, কিন্তু এটা তো ফুটবলেরই অংশ। এটা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি মুহূর্ত। আমি এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছে গেছি, যা বলতে পারেন আমার ক্যারিয়ারের প্রথম কিংবা দ্বিতীয় টার্নিং পয়েন্ট। এখানে অনেক কিছু শিখেছি আমি। মনে হচ্ছে, এখন আরো বেশি দায়িত্ব কাঁধে নেয়ার সময় এসেছে। হয়তো এটা পিএসজিতে, যে ক্লাব আমাকে অনেক আনন্দের উপলক্ষ্য এনে দিয়েছে কিংবা অন্য কোথাও নতুন কোনো প্রকল্পে।’

তার এ কথাটি নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা আরেকটু বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার যা বলা উচিত ছিল তা-ই বলেছি। সাধারণত এমন অনুষ্ঠানে আপনি একটি বার্তা দিতে চাইবেন, আমিও আমারটি দিয়েছি। আমি আরো বেশি কথা বললে তা বাড়াবাড়ি হয়ে যেত এবং আমি তেমন বার্তা দিতেও চাইনি।’

পুরস্কার অনুষ্ঠানে এমবাপ্পের বক্তব্য শুনে বেশ মর্মাহত দেখা যায় পিএসজির জার্মান কোচ টমাস টুখেলকে। কেননা এ মৌসুমে ফ্রেঞ্চ লিগে ৩২ গোল ও সব মিলিয়ে ৩৮ গোল করেন এমবাপ্পে, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন আরো ১৭টি। এমন খেলোয়াড় কোথায় পাবে পিএসজি? নেইমারের ইনজুরির সময় তিনিই ছিলেন টুখেলের ভরসা। সে খেলোয়াড়টি যখন বিদায়ের ইঙ্গিত দেন, তখন তা সবচেয়ে বেশি দগ্ধ করে কোচকেই।

ফ্রান্স জাতীয় দলের তুরুপের তাস এমবাপ্পেকে ২০১৭ সালের গ্রীষ্মে মোনাকো থেকে ধারে নেয় পিএসজি, ২০১৮ সালের গ্রীষ্মে ১৬৬ মিলিয়ন পাউন্ডে তাকে স্থায়ীভাবে কিনে নেয় ক্লাবটি। মোনাকো থেকে পিএসজিতে নাম লেখানোর আগেই এমবাপ্পেকে কিনতে চেয়েছিল রিয়াল। আসন্ন মৌসুম সামনে রেখে রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদানের ১ নম্বর টার্গেট এ তরুণ তুর্কি। পরশু রাতে তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে সবচেয়ে বেশি খুশি হবেন বোধহয় জিদানই।

ছয় ম্যাচ বাকি থাকতেই এবার ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের শিরোপা জিতে নিয়েছে পিএসজি, যদিও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে হেরে বিদায় নেয় তারা। এরই মধ্যে বিশ্বকাপের পদক গলায় পরা এমবাপ্পে এখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিততে মরিয়া। কিন্তু পিএসজি এ মিশনে বারবার ব্যর্থ হচ্ছে বলে তিনি টার্গেট করে থাকতে পারেন রিয়াল মাদ্রিদকে, যারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৩ বারের চ্যাম্পিয়ন।

আসন্ন গ্রীষ্মে ‘গ্যালাকটিকোস’ গঠন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। স্প্যানিশ জায়ান্টরা নাকি এরই মধ্যে এমবাপ্পের জন্য পিএসজিকে ২৪ কোটি পাউন্ডের প্রস্তাব দিয়েছে। এ অর্থে তাকে কিনলে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়বে মাদ্রিদ জায়ান্টরা। ফুটবলের বিশ্বরেকর্ড ১৯ কোটি ৯০ লাখ পাউন্ড বা ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা থেকে ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ড নেইমারকে কিনে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিল পিএসজি। এবার তাদের এক খেলোয়াড়কে কিনেই নতুন রেকর্ড গড়তে পারে রিয়াল।

রিয়াল মাদ্রিদ স্কোয়াডে আসতে পারে বড় পরিবর্তন। ওয়েলস উইঙ্গার গ্যারেথ বেল, কলম্বিয়ান তারকা হামেশ রদ্রিগেজ, স্প্যানিশ খেলোয়াড় ইসকো ও ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা বিদায় নিতে পারেন। তাদের জায়গায় আসবে নতুন একঝাঁক খেলোয়াড়। ম্যানইউর পল পগবা, চেলসির এডেন হ্যাজার্ড, টটেনহামের ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনরা রয়েছেন রিয়ালের রাডারে। তবে জিদানের ১ নম্বর টার্গেট এমবাপ্পে। পিএসজির গোলমেশিনকে কিনতে পারলে আক্রমণভাগ নিয়ে জিদানের দুশ্চিন্তা অনেকখানি লাঘব হয়ে যাবে। এখন দেখার বিষয়, স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুকেই নিজের পরবর্তী ঠিকানা হিসেবে বেছে নেন কিনা ২০ বছরের ফুটবল বিস্ময়।

স্পোর্টসমেইল, মার্কা

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri