izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

পেকুয়ায় গ্রাম পুলিশকে পেটালেন স্ত্রী

hamla-lt.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(২২ মে) :: পেকুয়ায় গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে জখম করল স্ত্রী। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ২০ মে বিকাল ৩ টার দিকে উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়া গ্রামে। আহত গ্রাম পুলিশের নাম মাহামুদুল করিম প্রকাশ কাদের (৩৫)। তিনি বারবাকিয়া ইউপির কর্মরত গ্রাম পুলিশ। বারবাকিয়া ইউপির সদস্য বেলাল উদ্দিন ও গ্রাম পুলিশ হারুনুর রশিদ মারধরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তারা জানায়, মাহামুদুল করিম প্রকাশ কাদেরকে নিষ্টুরভাবে পিটিয়ে জখম করে। তারা তাকে পিটিয়ে আটকিয়ে রাখে। খবর পেয়ে পেকুয়া থানা পুলিশ জখমী অবস্থায় গ্রাম পুলিশকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

স্থানীয় সুত্র জানায়, গ্রাম পুলিশ মাহামুদুল করিম ওই দিন ইউপির হোল্ডিং ট্যাক্স উত্তোলন করতে নোয়াখালী পাড়া যান। এ সময় তার স্ত্রী নুরতাজ বেগম ও স্ত্রীর ভাই তৌহিদ, মিরাজ ও শওকতসহ ৪/৫ জন মিলে তাকে হামলা চালায়। এ সময় লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাকে জখম করে।

ইউপি সদস্য বেলাল উদ্দিন জানায়, নুরতাজ বেগম স্বামীর অবাধ্য স্ত্রী। কাদের ওই নারীর দ্বিতীয় স্বামী। ওই মহিলার প্রথম স্বামীও আমাদের ইউপির গ্রাম পুলিশ ছিল। স্বামী-স্ত্রীর বনিবনা নিয়ে স্ত্রীর মামলায় প্রথম স্বামী জেলে ছিল। সেখানে তার মৃত্যু হয়। কাদের বিয়ের পর থেকে সাংসারিক কলহে জড়িয়ে যায়। মেয়েটি মামলাবাজ।

দ্বিতীয় স্বামীকেও মামলা দিয়ে দীর্ঘদিন জেল খাটায়। কয়েক মাস আগে আমরা সাংসারিক দ্বন্ধ নিরসন করতে উদ্যোগ নিয়েছিলাম। চেয়ারম্যান সহ সালিশি প্রতিনিধিরা দাম্পত্য জীবনের অবসানের সিদ্ধান্তে পৌছে। এরপর ঘটনার দিন তাকে সরকারী কাজ করার সময় আক্রমন করেছে তারা।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri