পেকুয়ায় টিকেট নিয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ, মহিলা সহ আহত-১০ : গাড়ি ভাংচুর

sngrsa.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(৯ জুন) :: কক্সবাজারের পেকুয়ায় বাসের টিকেট নিয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় মহিলাসহ ১০ জন আহত হয়েছে। বিক্ষুদ্ধ লোকজন কাউন্টারে হানা দেয়। এ সময় চট্টগ্রাম-মগনামা সড়কে চলাচলরত সানলাইন সার্ভিস বাস গাড়ীতে ভাংচুর চালায়। পেকুয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

৯ জুন (রবিবার) সকাল ৯ টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের জেটিঘাটে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন জেটিঘাট এলাকার শহিদুল ইসলাম (৪০), মহিউদ্দিন (৪৭), মানিক (১৯), লাইনম্যান আরিফ (২০), হাজী শামশুল ইসলাম (৪০), কুতুবদিয়ার কৈয়ারবিলের নজরআলী বাড়ির আলিফ খান লিনাজ (১৭), আয়াত খান নিহাল (১৬), শেখ মোহাম্মদ রাসকিন (১৮), জাহান আরা বেগম (৪০), অপর আহতের নাম জানা যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্র জানায়, ওই দিন সকালে কুতুবদিয়ার বিপুল যাত্রী চট্টগ্রাম শহরে যাওয়ার জন্য মগনামা জেটিঘাটে সানলাইন বাস সার্ভিসের টিকেট কাউন্টারে জড়ো হয়। মহিলা যাত্রী জাহান আরা বেগম ও সানলাইন সার্ভিসের কাউন্টারে কর্মচারীদের সাথে টিকেট নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। গাড়ীর টিকেট বুকিং হয়ে গেছে এমন উক্তি শুনার পর ওই মহিলা রাগান্বিত হন।

এ সময় পায়ের জুতা নিয়ে গাড়ীর ড্রাইভার ও সুপারভাইজারদের দিকে ধেয়ে যায়। এক পর্যায়ে জুতা ও ইটপাটকেল ছুড়ে গাড়ীতে। এ সময় গাড়ীর পিছুনের কাঁচ ভেঙ্গে যায়। ছুড়া ইটের আঘাতে গাড়ীতে অবস্থানরত উল্লেখিত যাত্রীগন আহত হয়েছেন।

অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক শহিদুল ইসলাম জানায়, আমি ঈদ করতে গ্রামে এসেছিলাম। ওই দিন সানলাইন যোগে চট্রগ্রাম শহরের দিকে রওয়ানা দিই। গাড়ীতে আমার স্ত্রী ও দু’ সন্তান ছিল। কুতুবদিয়ার ওই মহিলা অত্যন্ত খারাপ আচরন করেছে। নিজে ইট নিয়ে গাড়ী আক্রমন করে। আমরা তাকে নিবৃত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি। আমার দু’ছেলের মাথায় ইটের আঘাত লাগে।

জেটিঘাটের ব্যবসায়ী মহিউদ্দিন জানায়, মেয়েটি হিং¯্র। গাড়ীর কাউন্টারে গিয়ে পুরুষদের উপর সরাসরি আক্রমন চালায়। টিকেট কাউন্টারের ম্যানেজারকে হামলা চালায়। ক্যাশ ও চেয়ার ভাংচুর করে। ওই মহিলার সাথে ৩/৪ জন যুবকও হামলায় অংশ নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী হাজী শামশুল ইসলাম জানায়, আমরা গিয়েছিলাম মারপিট থামাতে। কিন্তু মহিলাসহ ৩/৪ জন যুবক এলোপাতাড়ি ইট ছুড়েছে। আমিও সামান্য আহত হয়েছি।

মগনামা জেটিঘাট ব্যবসায়ী ও কর্মস্থল মুখী বিপুল যাত্রী এ প্রতিবেদককে জানায়, সানলাইন বাস সার্ভিস মগনামা ঘাট থেকে চট্টগ্রাম শহরে যাতায়াত করে। কর্তৃপক্ষ ওই সার্ভিসের মাধ্যমে যাত্রী ভোগান্তি নিরসন করেছে। গাড়ীর সার্ভিস অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ভাড়া সাশ্রয় ঈদের এ সময়েও এক টাকাও তারা ভাড়া অতিরিক্ত নেয়নি। সারা বছর একই ভাড়ায় আমরা এ বাস দিয়ে যাতায়াত করি। কিন্তু ওই দিন এ মহিলার আচরন ছিল চরম অন্যায়। আমরা যাত্রীরা একজন নারীর ওই আচরনে হতভম্ব হয়েছি।

সানলাইন সার্ভিস কাউন্টারের ম্যানেজার আবুল কাসেম ও শোয়াইব জানায়, আমরা দীর্ঘদিন সানলাইন চালু হওয়ার পর থেকে প্রতি ঈদে যাত্রীর প্রচুর ভীড় থাকার কারনে সিরিয়ালের ব্যবস্থা করি। উক্ত সিরিয়াল অমান্য করে আমাদেরকে টিকেট দিতে বাধ্য করে। আমরা অপারগতা প্রকাশ করলে তারা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা করে।

Share this post

PinIt
scroll to top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno