চকরিয়া বদরখালীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া দুই পরিবারকে নতুন বাড়ি

Chakaria-Picture-19-06-2019.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৯ জুন) :: চকরিয়া উপজেলার উপকুলীয় জনপদ বদরখালী ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের ছনুয়া পাড়া গ্রামে অগ্নিকা-ে নি:স্ব দুইটি পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান। আগুনে হতদরিদ্র আব্দুল হক ও তার ছেলে নুরুল আলমের দুটি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ঘটনাটি জেনে পরদিন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান ইউএনও শিবলী নোমান। ওইসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্থ দুইটি পরিবারকে কথা দেন, ১৫ দিনের মধ্যে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষথেকে নতুন ঘর দেওয়া হবে। ঠিকই কথা রেখেছেন ইউএনও শিবলী নোমান। অবশেষে তিনি জেলা প্রশাসনের ত্রাণ তহবিলের মাধ্যমে দুইটি পরিবারকে নতুন ঘর উপহার দিয়েছেন।

বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল বশর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সম্প্রতি বদরখালী ইউনিয়নের ছনুয়া পাড়া গ্রামে অগ্নিকা-ে হতদরিদ্র আব্দুল হক ও তার ছেলে নুরুল আলমের দুটি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘটনাটি জেনে পরদিন নি:স্ব দুইটি পরিবারের পাশে দাঁড়ান চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ইউএনও শিবলী নোমান ক্ষতিগ্রস্থ দুইটি পরিবারকে কথা দেন, ১৫ দিনের মধ্যে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষথেকে নতুন ঘর দেওয়া হবে। তিনি ঠিকই কথা রেখেছেন ইউএনও শিবলী নোমান। গতকাল বুধবার দুইটি পরিবারকে নতুন ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা গেছে, বদরখালীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া দুইটি পরিবারকে নতুন ঘর উপহার দিতে উপজেলা প্রশাসন দুই লাখ টাকার বেশি খরচ করেছেন। জেলা প্রশাসকের ত্রাণ তহবিলের মাধ্যমে চকরিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তর ইউএনও শিবলী নোমানের নির্দেশে বদরখালীর ক্ষতিগ্রস্থ ওই দুইটি পরিবারকে নতুন ঘর নির্মাণ করে দিতে কাজ করেছেন।

এদিকে নতুন দুইটি ঘর পেয়ে হতদরিদ্র আব্দুল হক ও তার ছেলে নুরুল আলম এবং স্থানীয় লোকজন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। একটি মহতি উদ্যোগকে সকলের স্বাগত জানিয়েছেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri