কুতুবদিয়ায় বড়ঘোপ ইউপির উপ-নির্বাচন : কে হতে যাচ্ছেন বড়ঘোপ’র নতুন চেয়ারম্যান ?

up-el-1.jpg

নজরুল ইসলাম,কুতুবদিয়া(২৫ জুন) :: আগামী ২৫ জুলাই কুতুবদিয়া উপজেলা সদর বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন। কে হতে যাচ্ছেন বড়ঘোপ ইউপির চেয়ারম্যান। এ নিয়ে জনমনে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। বাকী দেড় বছরের জন্য চেয়ারম্যান নির্বাচন নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই সাধারণ মানুষের।

বিশ্বস্তসূত্রে জানাগেছে, দলীয়ভাবে আওয়ামীলীগের টিকেট পেতে পারেন বড়ঘোপ ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান, বড়ঘোপ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কালাম। যদিও মহাজোট থেকে কুতুবদিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও কুতুবদিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন ছোটনকে একক প্রার্থী দেওয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়ে কুতুবদিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টি।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২৫ জুন (মঙ্গলবার) পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে তিনটি। যে সব প্রার্থীরা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন তারা হলেন, আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন ছোটন,রুস্তম আলী মতবর ও শামশুল আলম টিটু মাতবর। মনোনয় ফরম সংগ্রহ ও জমা দেওয়া যাবে ৩০ জুন পর্যন্ত।

এরপর মনোনয়ন পত্র বাছাই করা হবে ২ জুলাই। আর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ নির্ধান করা হয়েছে ৯ জুলাই । তারপর ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দ শেষে ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন।

নির্বাচন অফিস আরো জানায়, বড়ঘোপ ইউপির মোট ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ২৬৩ জন। তৎমধ্যে ৯ হাজার ৯০৭ জন পুরষ ভোটার এবং ৯ হাজার ৩৫৬ জন মহিলা ভোটার। ইউনিয়নের মোট ৯টি ভোট কেন্দ্রের ৫২টি বুথে অনুষ্ঠিত হবে এবারের নির্বাচন।

বড়ঘোপ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে কথা হয় সাধারণ মানুষের সাথে। ইউনিয়নটি উপজেলা সদরে হওয়ায় স্বল্প সময়ের জন্য হলেও ভোট নিয়ে মানুষের আগ্রহ একটু বেশী। এ ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের মধ্যে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশী দেখা গেছে সেটি হচ্ছে ব্যক্তি কেন্দ্রীক প্রাধান্যতা।

সে বিবেচনায় উপজেলা সদরের এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে পারেন কিংবা প্রার্থী হতে ইচ্ছুক এমন আরো যাদের নাম উঠে এসেছে তারা হলেন, কুতুবদিয়া উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রনেতা জাহেদুল ইসলাম ফরহাদ মাতবর, বড়ঘোপ ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান টিটু মাতবর, উপজেলা আ’লীগ নেতা আলহাজ ছাবের আহমদ কোম্পানি।

এ তালিকায় বড়ঘোপ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাকের উল্লাহর নামও বাদ যায় নি। উঠে এসেছে বড়ঘোপ ইউনিয়নের বিশিষ্ট ব্যবসায় আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম কোম্পানীর সুযোগ্য পুত্র তৌহিদুল ইসলাম খোকন ও কুতুবদিয়া উপজলা মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি আবুল কালাম আযাদের নামও। তবে শেষ পর্যন্ত কে হতে যাচ্ছেন বড়ঘোপ ইউনিয়নের পরিষদের পরবর্তী চেয়ারম্যান তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের শেষ তারিখ পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো উপজেলা বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সম্প্রতি শেষ হওয়া ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি আ’লীগের দলীয় প্রতীক নিয়ে প্রার্থী হওয়ায় বড়ঘোপ ইউপি চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

যদিও নির্বাচন কমিশন কর্তৃক গেজেট প্রকাশের পরেও বিভিন্ন আইনি জটিলতায় তিনি এখনো শপথ গ্রহণ করতে পারেননি।

এড.ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করার কারণে নির্বাচন কমিশন বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের আসনটি শূণ্য ঘোষণা করে তপসীল ঘোষণা করেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri