আন্তর্জাতিক আদালতে কুলভূষণ মামলায় ভারতের জয়

kulbhushan-1-1.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৭ জুলাই) :: কুলভূষণ মামলায় ভারতের জয়। কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড খতিয়ে দেখার নির্দেশ পাকিস্তানকে। বুধবার সেই গুরুত্বপূর্ণ মামলায় রায় দিল আন্তর্জাতিক আদালত।

অর্থাৎ এই মুহূর্তে পাকিস্তান কুলভূষণকে ফাঁসি দিতে পারবে না। আপাতত পাক আদালতের মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দেওয়া হল। ৪২ পাতার অর্ডারে সেই রায়ের উল্লেখ রয়েছে।

পাশাপাশি ভারত যে বারবার কনস্যুলার অ্যাকসেস চেয়েছিল, তা পাকিস্তানের দেওয়া উচিৎ বলেও মন্তব্য করা হয়েছে। কুলভূষণের ক্ষেত্রে পাকিস্তান ভিয়েনা কনভেনশন ভেঙেছে বলে আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে।

ভারতের প্রাক্তন নৌসেন অফিসার কুলভূষণকে বালুচিস্তান থেকে ২০১৬-র ৩ মার্চ গ্রেফতার করে পাক নিরাপত্তা বাহিনী। কুলভূষণের বিরুদ্ধে পাক সামরিক আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে ভারত আন্তর্জাতির ন্যায় বিচার আদালতের দ্বারস্থ।

২০১৭-র এপ্রিলে পাক সামরিক আদালত ৪৭ বছরের কুলভূষণকে ফাঁসির সাজা দেয়। পাকিস্তানের দাবি, ইরান থেকে বালুচিস্তানে ঢুকে পড়েছিলেন কুলভূষণ। তাঁকে ভারতের গুপ্তচর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। গুপ্তচরদের কনস্যুলার অ্যাকসেস দেওয়া উচিৎ নয় বলে বারবার দাবি করে ভারত।

২০১৭-র ডিসেম্বরেই কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করতে পাকিস্তানে যায় কুলভূষণের স্ত্রী ও মা। সেখানে তাঁদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়। স্ত্রী’র জুতো খুলে ফরেনসিক টেস্টে পাঠানো হয়। আর পাকিস্তানের এই ব্যবহারে যে নিম্নরুচির পরিচয় দিয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানায় ভারত।

চরবৃত্তির অভিযোগের জেরে কুলভূষণের তথাকথিত স্বীকারোক্তির ভিডিয়োও আন্তর্জাতি আদালতে পেশ করা হয়। কিন্তু প্রতিটি আবেদনই খারিজ করে বেঞ্চ৷ গত ১৮ ফেব্রুয়ারি হেগ-এ আন্তর্জাতিক আদালতের সদর দফতরে মামলার চার দিন ব্যাপী শুনানি চলে।

সেই শুনানিতে কুলভূষণের হয়ে সওয়াল করেন আইনজীবী হরিশ সালভে৷ ভারতের প্রাক্তন সলিসিটার জেনারেল হরিশ সালভে সই সময় জানিয়েছিলেন, ‘‘নির্দিষ্ট প্রমাণ দিয়ে কুলভূষণকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য ভারতের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছিল, কিন্তু পাকিস্তান তা মানতে চায়নি। কুলভূষণের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ পাকিস্তান করেছে তা ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন সালভে৷

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri