buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

ইরানের বদলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে জ্বালানি তেলের আমদানি বাড়াল ভারত

usa-iran-india-oil.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৮ জুলাই) :: অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের ভোক্তা দেশগুলোর তালিকায় ভারতের অবস্থান বিশ্বে তৃতীয়। আর জ্বালানি পণ্যটির আমদানিকারকদের বৈশ্বিক তালিকায় ভারত চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। জ্বালানি পণ্যটির অভ্যন্তরীণ চাহিদার একটি বড় অংশ ইরান থেকে আমদানি করত ভারত। গত মাস পর্যন্ত ইরানের তেল রফতানির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বাজার ছিল ভারত। কিন্তু গত নভেম্বরের পর নতুন করে ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় দেশটি থেকে জ্বালানি তেল আমদানি কমিয়েছে ভারতের পরিশোধ কেন্দ্রগুলো। এর বিপরীতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি বাড়িয়েছে ভারত।

খবর রয়টার্স ও অয়েলপ্রাইসডটকম।

তেলবাহী ট্যাংকার পৌঁছানোর তথ্য বিশ্লেষণ করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, প্রথাগতভাবে মধ্যপ্রাচ্য থেকে জ্বালানি তেল আমদানির তুলনায় ভারতের বাজারে এখন যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি তেল রফতানি বেড়েছে।

গত নভেম্বরের শুরুতে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে যে আটটি দেশ বিশেষ ছাড় পেয়েছিল, তাতে ভারতের নাম ছিল। ছয় মাসের এ বিশেষ ছাড় শেষ হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র থেকে জ্বালানি পণ্যটির আমদানি বাড়ায় ভারত। এ সময়ে ভারতের বাজারে যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রতিদিন ১ লাখ ৮৪ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল প্রবেশ করেছে। গত বছরের একই সময়ে এ আমদানির পরিমাণ ছিল দিনে মাত্র ৪০ হাজার ব্যারেল।

তবে ইরানের ওপর আরোপ করা মার্কিন নিষেধাজ্ঞার আগেই দেশটি থেকে জ্বালানি তেল আমদানি কমিয়ে দেয় ভারত। গত অক্টোবরে ইরান থেকে ভারতীয় আমদানিকারকরা প্রতিদিন গড়ে ৪ লাখ ৬৬ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করেন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১২ শতাংশ কম।

ইরানের ওপর গত বছরের নভেম্বরে আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা থেকে বিশেষ ছাড়ের সময়সীমা অতিক্রম করায় ইরানের জ্বালানি তেল রফতানি কমেছে। ট্যাংকারের তথ্য বিশ্লেষণ করে রয়টার্স জানিয়েছে, বিশেষ ছাড়ের সময় অতিক্রম করায় দিনে ইরানের জ্বালানি তেল রফতানি কমেছে ২ লাখ ৭৫ হাজার ব্যারেল, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৮ শতাংশ কম।

ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞার সময় ভারত অন্যান্য দেশ থেকে জ্বালানি তেল আমদানি বাড়িয়েছে। এ সময় সৌদি আরব থেকে জ্বালানি পণ্যটির আমদানি ১১ শতাংশ বাড়িয়ে দিনে ৮ লাখ ৪ হাজার ব্যারেল জ্বালানি তেল আমদানি করেছে ভারত। একই সময়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ৩৭ শতাংশ বাড়িয়ে দিনে ৩ লাখ ৬০ হাজার ব্যারেল জ্বালানি তেল আমদানি করেছে ভারত। তবে এ সময় ইরাক থেকে ৩ দশমিক ৩ শতাংশ কমিয়ে দিনে ১ লাখ ১০ হাজার ব্যারেল জ্বালানি তেল আমদানি করেছে ভারতের পরিশোধন কেন্দ্রগুলো।

দেশটির কেন্দ্রীয় জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন পেট্রোলিয়াম প্ল্যানিং অ্যান্ড অ্যানালাইসিস সেলের (পিপিএসি) প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের মার্চে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ভারতীয় আমদানিকারকরা সব মিলিয়ে ১ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করেছে। আর এপ্রিলে ভারতে জ্বালানি পণ্যটির আমদানি আগের মাসের তুলনায় ২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়ায় ১ কোটি ৯৭ লাখ ২০ হাজার টনে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতের বাজারে কম জ্বালানি তেল রফতানি হলেও মধ্যপ্রাচ্যের রফতানিকারকদের জন্য হুমকি হয়ে উঠছে দেশটি। কারণ সৌদি আরবের আরামকো এবং মধ্যপ্রাচ্যের তেলের দাম বেশি হওয়ায় ভারতের বাজারে যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি তেল বিক্রি বেড়েছে। ভারতের বাজারে জ্বালানি পণ্যটির রফতানিতে ইরানের জায়গা নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের রফতানি আরো বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র।

গত মাসের শুরুর দিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ভারতের বাজারে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) এবং অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি বাড়ানোর কথা জানিয়েছিলেন।

ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের মধ্যকার এক আলোচনায় মাইক পম্পেও বলেন, ভারতের বাজারে যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি তেল রফতানি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত সে দেশের ব্যবসায়ীদের জন্য ভেনিজুয়েলা ও ইরানের মতো সংকট পূর্ণ দেশের তুলনায় অনেক বেশি নির্ভরযোগ্য হবে।

এদিকে আমদানি বাড়ালেও ভারতে অরিশোধিত জ্বালানি তেলের উত্তোলন কমেছে। চলতি বছরের মে মাসে দেশটিতে ২৮ লাখ টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন হয়েছে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬ দশমিক ৯১ শতাংশ কম। কিন্তু এ সময়ে দেশটিতে প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলন দশমিক ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ২৭৩ কোটি ৮৯ লাখ ২০ হাজার ঘনমিটারে উন্নীত হয়েছে।

ভারতের পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পরিচালনা ইস্যু, পরিবেশগত ছাড়পত্রের অভাব, নিম্নমানের কাজের কারণে দেশটিতে অপরিশোধিত তেলের উত্তোলন কমেছে।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri