ভারত এবং রাশিয়ার মধ্যে ১৫০০ কোটির R-27 মিসাইল চুক্তি

R-27.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৯ জুলাই) :: ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানী জঙ্গিবিমানের সঙ্গে ডগ ফাইটে ভারতীয় জঙ্গিবিমানের পাইলট অভিনন্দন বর্তমান আর-৭৩ এয়ার-টু-এয়ার মিসাইল ছুঁড়ে প্রতিপক্ষের এফ-১৬ ঘায়েল করেছিল। এবার ভারত একই রকম তবে উন্নত সংস্করণের ৩০০ আর-৭৩ কেনার জন্য রাশিয়ার সঙ্গে ২১৫ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি করেছে। সোমবার এই চুক্তি সই হয়। সীমান্তে মোতায়েন রাশিয়ার তৈরি সু-৩০এমকেআই জঙ্গিবিমানে ব্যবহার করার জন্য এসব মিসাইল কেনা হচ্ছে।

সরকারি সূত্র জানায়, আর-৭৩ই এয়ার টু এয়ার মিসাইল সংগ্রহের জন্য রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি সই হয়েছে। এসব মিসাইল সু-৩০এমকেআই কমব্যাট এয়ারক্রাফটে সংযোজন করা হবে।

আর-৭৩ মিসাইলের রয়েছে ক্রায়োজেনিক কুলড সিকার এবং এটি শত্রু খোঁজার জন্য থ্রাস্ট ভেক্টরিং ব্যবহার করে। ফলে এই মিসাইলের অফ-বোরসাইট ক্যাপাবিলিটি অনেক। একটি মিসাইলের ওজন ১০৫ কেজি ও লম্বায় ২.৯৩ মিটার, প্রস্থ ১৬৫ মিলি মিটার। এটি ৭.৪ কেজি ওজনের ওয়ারহেড বহন করতে পারে।

এই মিসাইল ২০০ মিটার থেকে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত উচ্চতার টার্গেটে আঘাত হানতে পারে।

ভারত এই ক্ষেপনাস্ত্র তার মাল্টিরোল রাফাল ফাইটার জেটেও যুক্ত করতে চাচ্ছে এবং রাফালকে আর-৭৩ই ব্যবহারের উপযুক্ত করে তৈরি করতে ফ্রান্সের ডসাল্টের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে।

৪০০ মিডিয়াম রেঞ্জের আরভিভি-এই এয়ার-টু-এয়ার গাইডেড মিসাইলে কেনার জন্যও আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ভারত। তাছাড়া রাশিয়ার তৈরি রাডার জ্যামিং মিসাইল এক্স-৩১ নিয়েও আলোচনা হচ্ছে।এর আগে ভারত রাশিয়ার সঙ্গে ২০০ কোটির অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল চুক্তিকে সই করে৷ এই মিসাইল Mi-35 অ্যাটাক চপারের সঙ্গে যুক্ত করা হবে৷

গত মার্চে রাশিয়ার মিসাইল নির্মাতা ভিমপেল ভারতীয় বিমান বাহিনীর কাছে অনেক ধরনের মিসাইল বিক্রির প্রস্তাব দেয়। ভারত বর্তমানে যেসব মিসাইল ব্যবহার করছে সেগুলোর উন্নত সংস্করণ তৈরিরও প্রস্তাব দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, 10-I পরিযোজনার ভিত্তিতে সরকার এই মিসাইল নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এর ফলে তিন সেনাবাহিনীর কাছেই প্রয়োজনীয় সামগ্রী থাকবে৷ রাশিয়া এই মিসাইলগুলি নিজেদের মিগ এবং সুখোই সিরিজের যুদ্ধবিমানের সঙ্গে যুক্ত করার জন্য তৈরি করেছে৷ এই মিসাইল ভারতের হাতে এলে ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি একধাক্কায় বহুগুণ বেড়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে৷

গত ৫০দিনে ভারতীয় বায়ুসেনা ৭,৬০০কোটির সামরিক চুক্তি করেছে বলে জানা যাচ্ছে৷ চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফের ওপর হওয়া জঙ্গি হামলার পরে সরকার তিন সেনাবাহিনীকে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে আরও শক্তিশালী করতে তুলতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার ক্ষেত্রে অনুমতি দিয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷

এদিকে, ইজরায়েল অ্যারোস্পেসের সঙ্গে পাঁচ কোটি ৫০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি হল ভারতীয় নৌসেনার। বৃহস্পতিবার ওই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ভারতীয় নৌবাহিনী ও মুম্বইয়ের এমডিএল শিপইয়ার্ডে মিসাইল সিস্টেমের জন্য সরঞ্জাম সরবরাহে এই ৫০ মিলিয়ন ডলারের একটি ‘ফলোআপ চুক্তি’ হয়েছে বলে জানিয়েছে ইজরায়েলের সরকারি সামরিক ঠিকাদার সংস্থা অ্যারোস্পেস ইন্ড্রাস্টিজ।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri