নাইক্ষ্যংছড়িতে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত

FB_IMG_1565667755143.jpg

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু,নাইক্ষ্যংছড়ি(১৩ আগষ্ট) :: প্রতি বছরের ন্যায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহহ ময়দানে এবছরও ঈদুল আযহার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে ঈদুল আযহার নামাজে পার্শ্ববর্তী মসজিদ ও আশপাশের বিভিন্ন এলাকার হাজারো মুসল্লি এক সাথে এ ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন। সোমবার (১২ আগষ্ট) উক্ত ঈদ জামাত নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়।

কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন মসজিদ কমিটির আপত্তির কারণে এ ঈদগাহ মাঠে নামাজ আদায় না হলেও বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যাপক মোঃ শফিউল্লাহর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এ বছর থেকে ঈদ জামাতে অংশ নিচ্ছেন বিভিন্ন মসজিদ। এ ভাবে ঈদগাহ ময়দানে নামাজ আদায় করতে পেরে সাধারণ মুসল্লীদের মাঝে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ করা গেছে।

তাই মুসল্লিরা  উপজেলা প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়ে আগামীতেও আরো বৃহৎ ঈদ জামাত আয়োজন করার আহ্বান জানান।

বৃহত্তর নাইক্ষ্যংছড়ির কেন্দ্রীয় ঈদগা ময়দানে সকাল ৭.৩০টায় ঈদুল আযহার প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ ঈদ জামাতে  ইমামতি করেন উপজেলার থানার মোড় জামে মসজিদের খতিব ও গর্জনিয়া ফইজুল উলুম ফাযিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ  মাওলানা মোঃ আইয়ুব।

পরে দ্বিতীয় ঈদ জামাতের ইমামতি করেন নাইক্ষ‌্যংছড়ি বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা বশিরুল আলম এবং আলোচনা করেন মসজিদঘোনা আল-মারকাজুল দারুস সালাম জামে মসজিদের খতিব মাওলানা জালাল ফারুকী।

এদিন শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় ও নিরাপত্তার জন্য থানা পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

নামাজ শেষে সমগ্র মুসলিম উম্মাহসহ দেশ ও জাতির কল্যাণ, সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা ও ডেঙ্গু থেকে হেফাজত করতে বিশেষ মোনাজাত করেন, মাওলানা বশিরুল আলম।

জামাত শেষে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. শফিউল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. ইকবাল, সদর ইউপি চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও মুসল্লিরা একে অপরের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri