চকরিয়া-পেকুয়ায় ২৭ লাখ টাকার অনুদান পেলেন ৩৩জন অসুস্থ নারী-পুরুষ

Chakaria-Picture-14-09-2019-Zafar-M.P.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৪ সেপ্টেম্বর) :: কক্সবাজার চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার দুইজন মুক্তিযোদ্ধাসহ ৩৩জন অসুস্থ অচ্ছল নারী-পুরুষের জন্য ২৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা।

শনিবার বিকালে পালাকাটাস্থ বাসভবনে চকরিয়া-পেকুয়ার ৩৩জন অসুস্থ নারী-পুরুষ। চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার অসুস্থ ও অচ্ছল এসব নারী-পুরুষের হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিলের আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম।

অনুদানের চেক প্রাপ্তদের মধ্যে চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ফুলছড়ি মাদরাসা পাড়া এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ ইউছুপের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন আহমদকে ৩ লাখ টাকা ও উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা মৃত আবদুল হাদীর ছেলে মুক্তিযোদ্ধা নজির আহমদকে ৩ লাখ টাকার অনুদানের চেক তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসময় উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর জামাল উদ্দিন, খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আজাদ, পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, চকরিয়া পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আবুল কাশেম।

এছাড়াও চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার ৩৩জন অসুস্থ অচ্ছল নারী-পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে চলতিবছরের জুলাই মাসে এমপি জাফর আলমের প্রচেষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তহবিলের ১২ লাখ ৬০ হাজার টাকার অনুদান পেয়েছিলেন চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার ২৫জন অসুস্থ ও অচ্ছল নারী-পুরুষ। ওইসময় তাদের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম।

চেক প্রাপ্তরা হলেন, চকরিয়া উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের হালকাকারা সওদাগর পাড়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী মোছাম্মৎ হোসনে আরা বেগম, চকরিয়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের হালকাকারা এলাকার মৃত রফিকুল আলমের স্ত্রী দিলদার বেগম, পৌরসভার পালাকাটা কাসেম মাষ্টারপাড়ার মৃত মো. কামাল উদ্দিনের স্ত্রী আজিবুন্নাহার, চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের আছত আলীপাড়ার আমির হোছাইনের পুত্র বাপ্পী শাহরিয়ার উপল, সুরাজপুর ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামের আবু সানার পুত্র মোহাম্মদ ওসমান গণী, চকরিয়ার সিকদারপাড়ার দক্ষিণ চরপাড়া গ্রামের নুরুল আবছার বাদশার স্ত্রী কুলছুমা বেগম,

পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের কইড়া বাজারপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র ছাবের আহমদ, চকরিয়া পৌরসভার পালাকাটা গ্রামের মৃত আজিজুর রহমানের পুত্র মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, পেকুয়ার বারবাকিয়া ইউনিয়নের শীলখালী লামারপাড়া গ্রামের মৃত নুুরুল কবিরের স্ত্রী আসমাউল হুসনা, পৌরসভার দক্ষিণ করাইয়াঘোনা গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের পুত্র রহত উল্লাহ, চকরিয়া পৌরসভার লক্ষ্যারচর কাজির পাড়া গ্রামের আলতাজ আহমদের পুত্র মোহাম্মদ আবু তাহের, পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী মিয়াপাড়া মৃত হাবিবুর রহমানের স্ত্রী ছেনু আরা বেগম,

চকরিয়ার কাকারা ইউনিয়নের সাকের মোহাম্মদ চর এলাকার মো. আবু মুছা, চকরিয়ার বদরখালী ইউনিয়নের পূর্ব পুকুরিয়া খাসপাড়া গ্রামের নুরুল নবীর পুত্র মো. রফিক উদ্দিন, পেকুয়ার মগনামার পূর্ব উজানটিয়া গোদারপাড়া গ্রামের আব্দু সালামের পুত্র আহমদ ছফা, পেকুয়া বারবাকিয়া রাহাত আলীপাড়ার জামাল হোছাইনের স্ত্রী আনার কলি, চকরিয়া পৌরসভার পূর্ব কাহারিয়াঘোনা গ্রামের রশিদ আহমদের পুত্র নজরুল ইসলাম, চকরিয়া পৌরসভার কাহারিয়াঘোনা মাষ্টারপাড়া গ্রামের জয়নাল আবেদীনের পুত্র আবুল হোসেন, পেকুয়ার টেটং হাজীর বাজার মৃত বরবাত আলীর পুত্র মোহাম্মদ কালু,

পেকুয়া বারবাকিয়া পেঠান মাতব্বরপাড়া গ্রামের দলিলুর রহমানের পুত্র মেহেরুন্নেছা বেগম, চকরিয়ার কাকারার নলবিলা মুসলিমনগর গ্রামের কবির হোছনের পুত্র মো. হেলাল, চকরিয়ার হারবাং শান্তিনগর মো. জয়নাল আবেদীন, চকরিয়া পৌরসভার কাহারিয়াঘোনা সিকদারবাড়ী গ্রামের মৃত আবু ছাদেকের পুত্র জাবেদ হোছাইন, পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী উলুদিয়াপাড়ার মৃত আবুল কালামের স্ত্রী আয়েশা বেগম।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri