উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গা নারীর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা

suicide-wmn.jpg

শহিদুল ইসলাম,উখিয়া(১৬ সেপ্টেম্বর) :: কক্সবাজারের উখিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে এক রোহিঙ্গা গৃহকর্ত্রীর অপমৃত্যু ঘটেছে।

স্বামী মনজুর আহমদের সাথে ঝগড়া করে স্বামীর অনুপস্থিতিতে স্ত্রী ৬ সন্তানর জননী নুর ফাতেমা (৩০) আত্মহত্যা করে।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং ৪ নং বর্ধিত ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

উক্ত ক্যাম্পের মোজাম্মেল মাঝি জানান,গত কয়েক মাস ধরে রোহিঙ্গা মনজুর আহমদ পাশ্ববর্তী অন্য এক রোহিঙ্গা যুবতীর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে।

সম্প্রতি ঐ যুবতীকে বিয়ে করে ঘরে তোলার জন্য সে মরিয়া হয়ে ওঠে।

কয়েক মাস ধরে স্ত্রী ও ছেলে মেয়েদের কোন ভরণ পোষন দিচ্ছে না। তাদের জন্য বরাদ্দকৃত রেশন ও অনান্য সামগ্রী উঠিয়ে উক্ত যুবতীরে ঘরে দিয়ে দিতো।

অন্যদিকে তার স্ত্রী ও ছোট ছোট ৬ ছেলে মেয়ে অনেক সময় উপোস থাককে হয় বলে জানা যায়। এসব ব্যাপার নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে প্রায় সময় ঝগড়া হোত ও স্বামী স্ত্রীকে মারধর করতো।

কুতুপালং মেগা ক্যাম্পের মধুরছড়া পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক মোঃ মাঈন উদ্দিন গলায় ফাঁস লাগিয়ে এক রোহিঙ্গা মহিলার মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri