কক্সবাজারের উপকূলীয় বদরখালী-মহেশখালী চ্যানেলে চাঁদাবাজি ও হয়রাণি বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

Chakaria-Picture-19-09-2019.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৯ সেপ্টেম্বর) :: কক্সবাজারের উপকূলীয় অঞ্চলের চকরিয়া উপজেলার বদরখালী-মহেশখালী চ্যানেলে বোট নিয়ে মাছ আহরণে যাওয়া মাঝি-মাল্লা ও বোট মালিকদের ওপর কোস্টগাডের অব্যাহত চাঁদাবাজি, শাররীক নির্যাতন এবং হয়রানী বন্ধের দাবিতে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে বোট মালিক সমিতি এবং সাধারণ জেলে সম্প্রদায়ের লোকজন।

বৃহস্পতিবার দুপর দেড়টার দিকে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপস্থিত হয়ে ক্ষুদ্ধ বোট মালিক এবং জেলেরা এ কর্মসুচি পালন করেন। ওইসময় তাঁরা মানববন্ধন শেষে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত করেন। মানববন্ধনে তারা কোস্টগার্ডের দায়িত্বরত কর্মকর্তার অপসারণ দাবী করেছেন।

বদরখালী ফিশিং বোট মালিক বহুমুখী সমবায় সমিতির আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা দাবি করেন, মহেশখালী জোনের অধিনস্থ বদরখালী কোস্টগার্ডের দায়িত্বরত কর্মকর্তার নেতৃত্বে উপকূলীয় চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ও মহেশখালী চ্যানেলে বোট নিয়ে মাছ আহরণে যাওয়া জেলে ও বোট মালিকদের কাছ থেকে কোস্টগার্ড অব্যাহত চাঁদাবাজি, শাররীক নির্যাতন ও হয়রানী করে আসছে। চাঁদা না দিলে জেলে ও মালিকদের নানা নির্যাতন ও হুমকি দিচ্ছে বলে সমিতির নেতৃবৃন্দরা দাবি করেন।

মানববন্ধনে নির্যাতনের বিবরণ বর্ননা করে সমিতির সদস্যরা বলেন, প্রতিনিয়ত ফিশিং বোটে থাকা জেলে ও বোট মালিক সদস্যদের এমন আচরণ করেন কোস্টগার্ড যেন আমরা নিজ দেশে থেকে পরদেশী বলে মনে হয়।

বদরখালীস্থ ফিশিং মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম জানান, বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য আইনকে সম্মান করে জেলেরা ইলিশ প্রজনন মৌসুমে বা জাটকা নিধন বন্ধে সাড়া দিয়ে মৎস্য আহরণ করতে সাগরে কোন ধরণের ফিশিং বোট নিয়ে না যাওয়ার নির্দেশনা যথা সময়ে পালন করে আসছি। এরপরও কোস্টগার্ডের লোকজন অহেতুক ভাবে নানা অজুহাতে জেলেদের অত্যাচার করে যাচ্ছে।

এ অবস্থার প্রেক্ষিতে তাঁরা কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট প্রশানের কাছে অভিযোগ করেছেন। তাঁরা কোস্টগার্ডের অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে ও নিরাপদে জীবিকা নির্বাহ করার সুযোগ নিশ্চিত করতে জোর দাবী জানান ।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বদরখালী ফিশিং বোট মালিক বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি আবু তালেব, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম, কার্যকরী কমিটির সদস্য মফিজ উদ্দিন কালু ও হারুনুর রশিদ, সমিতির সদস্য ও বোটের মালিকদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাকের হোসেন, নাজেম উদ্দিন, শাহাব উদ্দিন, নাছির উদ্দিন, বাদশা, নাজেম উদ্দিন, নুরুল হাসেম, নাজেম উদ্দিন, জাফর আলম, ওবাইদুল হক, মৌলভী শামসুল আলম, জসিম উদ্দিনসহ শতাধিক সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri