সৌদি তেল উত্তোলনকারী আরামকো শেয়ারবাজারে আইপিও ছাড়ছে

Aramco-750x563.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(৪ নভেম্বর) :: বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান কোম্পানি সৌদির রাষ্ট্রায়ত্ত তেল উত্তোলনকারী প্রতিষ্ঠান আরামকোর প্রকৃত মূল্য নির্ধারণে হিমশিম খাচ্ছে বিশ্ববিখ্যাত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো। রোববার (৩ নভেম্বর) সৌদির স্থানীয় শেয়ারবাজারে আরামকোর অন্তর্ভুক্তির আবেদনে সায় দেয় দেশটির  বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এর পরপরই কোম্পানিটির মূল্য নির্ধারণে নামে বিভিন্ন ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও অর্থনীতি নিয়ে গবেষণা করে এমন প্রতিষ্ঠানগুলো।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের এসব প্রতিবেদনে দেখা যায়, মার্কিন জায়ান্ট কোম্পানি অ্যাপল ও গুগলের মোট মূল্যের চেয়েও দামি সৌদির তেল কোম্পানি আরামকো। এ থেকেই বুঝা যায় এ কোম্পানিটি আয়ের দিক থেকে বিশ্বে এক নম্বর।

রোববার সৌদির শেয়ারবাজারে আইপিও ছাড়ার খবর নিশ্চিত হওয়ার পরপর এ প্রতিষ্ঠানটি নিয়ে ভাবছেন বিনিয়োগকারীরাও। আরামকো বাজারে কত শতাংশ শেয়ার ছাড়বে তা এখনও জানানো হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে স্থানীয় বাজারে ১ থেকে ২ শতাংশ শেয়ার ছাড়তে পারে কোম্পানিটি। আর তাতেই শেয়ার বাজারে সবচেয়ে বড় অন্তর্ভুক্তির রেকর্ড গড়া হয়ে যাবে আরামকোর।

আরামকোর মূল্য নিয়ে যে যা বলছে

আরামকোর প্রকৃত মূল্য নিয়ে বিস্তর ধোঁয়াশা রয়েছে। ২০১৬ সালে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের এক মূল্যায়ন প্রতিবেদনে জানানো হয় কোম্পানিটির মূল্য ২ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এবারে শেয়ারবাজারে আসার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আরামকো সম্পর্কে তাদের মূল্যায়ন প্রকাশ করেছে। এতে দেখা যায়, বেশিরভাগ মূল্যায়নেই ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের ফারাক রয়েছে।

এজিপ্টিয়ান ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক- ইএফজি হার্মেস তাদের এক মূল্যায়নে জানিয়েছে আরামকোর মূল্য হবে ১.৫৫ ট্রিলিয়ন থেকে ২.১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে। ব্যাংক অব আমেরিকার (বিওএফএ) বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি মেরিল লিঞ্চ তাদের এক মূল্যায়নে জানায়, আরামকোর মূল্য হবে ১.২ ট্রিলিয়ন থেকে ২.৩ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ দুই প্রতিষ্ঠানের মূল্যায়ন প্রতিবেদন এক বিশেষ সুত্রের বরাত দিয়ে প্রকাশ করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক ব্যাংক গোল্ডম্যান স্যাকস-এর মতে আরামকোর মূল্য ১.৬ ট্রিলিয়ন থেকে ২.৩ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

আর্থিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান বার্নস্টেইন রিসার্চ এর মতে আরামকোর মূল্য ১.২ ট্রিলিয়ন থেকে ১.৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

যে রেকর্ড গড়তে পারে আরামকো

আরামকো বাজারে কত শতাংশ শেয়ার ছাড়বে তা যদিও এখনও জানা যায়নি , তবে ধারণা করা হচ্ছে ১ থেকে ২ শতাংশ শেয়ার ছাড়তে পারে কোম্পানিটি।  এতে ২০ থেকে ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মুল্যের শেয়ার বাজারে আসতে পারে বলে ধারণা করছেন খাত সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ারবাজারে আরামকোর এ অন্তর্ভুক্তি বিশ্ব রেকর্ড ভাঙতে পারার সম্ভাবনা প্রবল। এর আগে ২০১৪ সালে চীনের ই-কমার্স কোম্পানি আলিবাবা বাজারে ২৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের শেয়ার ছেড়েছিলো যা এ যাবতকালের সর্বোচ্চ। আরামকোর মূল্য যে পরিমাণ নির্ধারণ করছে ব্যাংক ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো তাতে ১ থেকে ২ শতাংশ শেয়ার ছাড়লেও আলিবাবার রেকর্ড ভেঙে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, আরামকো বিশ্বের সবচেয়ে বেশি তেল উৎপাদনকারী কোম্পানি। দৈনিক প্রায় ১ কোটি ১৬ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন করে থাকে সৌদি আরামকো যার বর্তমান বাজারমূল্য প্রায় ৭২ কোটি মার্কিন ডলার।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri