buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জিতল লিভারপুল,ডর্টমুন্ড : অবিশ্বাস্য ড্র করল চেলসি ও বার্সেলোনা

cl6.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(৬ নভেম্বর) :: উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বেলজিয়ান দল গেংককে ২-১ গোলে হারিয়ে গ্রুপের শীর্ষে উঠল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। এ রাতে ন্যু ক্যাম্পের ৬৭ হাজার দর্শককে হতাশ করেন লিওনেল মেসিরা। লা লিগায় লেভান্তের মাঠে ১-৩ গোলে হারের পর এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে স্লাভিয়া প্রাগের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে বসল কাতালান জায়ান্টরা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মঙ্গলবারের রাতটা যেন ছিলো প্রত্যাবর্তনের। যে অবিশ্বাস্য গল্প লিখলো চেলসি আর ডর্টমুন্ড। আয়াক্সের বিপক্ষে ৪-১ গোলে পিছিয়ে থেকেও ৪-৪ ব্যবধানে ড্র করেছে ব্লু’রা। আর ইন্টার মিলানের বিপক্ষে ২ গোলে পিছিয়ে থাকা ম্যাচ, ডাই বরুশিয়ানরা জিতেছে ৩-২ ব্যবধানে। অন্যদিকে গেঙ্কের বিপক্ষে ২-১ গোলের কষ্টার্জিত জয় লিভারপুলের।

দুর্দান্ত ফিনিশিং, গোল, আত্মঘাতী গোল, লাল কার্ড, রেফারি আর ভিএআর বিতর্ক কি হয়নি এক ম্যাচে! তবুও জিততে পারেনি কেউই।

অবশ্য তাতে চেলসির কিই-বা আসে যায়। ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড হয়তো ঘুনাক্ষরে কল্পনাও করতে পারেনি দলের এমন খুনে প্রত্যাবর্তন। তিন মিনিটে দুই গোল, এ যেন সিনেমার কোন চিত্রনাট্য।

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ম্যাচের প্রথম ৪ মিনিটে দু’দলের ১টি করে গোল। পরে ঝড় বয়ে গেলো ব্লু গোলরক্ষক কেপা আরিজাবালাগার ওপর। ৫৫ মিনিটেই ৪-১ এ পিছিয়ে স্বাগতিকরা।

৬৮ আর ৬৯’ ম্যাচের মোড় ঘুরে যায় ১ মিনিটের ব্যবধানে ডাচ ক্লাবটির দুই ফুটবলারের লাল কার্ডে। ৯ জনের আয়াক্সের টুঁটি চেপে ধরে সমতায় চেলসি। পরে যোগ করা সময়ে ব্লুরা জয়সূচক গোল দিলেও সেটা বাতিল হয়ে যায় ভিএআরএ।

তবে সিগনাল ইদুনা পার্ক’ এবার আর কোন ড্র নয় বরং সাক্ষী হলো রোমাঞ্চকর এক জয়ের। যদিও ৫ মিনিটে লাউতারো মার্টিনেজ আর ৪০ মিনিটে ম্যাথিয়াস ভেসিনোর লক্ষ্যভেদে ২-০তে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ইন্টার।

বিরতির পর হলুদ দুর্গের জয়ের নায়ক আশরাফ হাকিমি। ৫১ আর ৭৭ মিনিটে তার জোড়া গোলের সঙ্গে ৬৪ মিনিটে জুলিয়ান ব্রান্‌ডের এক গোল। পূর্ণ তিন পয়েন্টির সঙ্গে এফ গ্রুপের দুই নম্বরে ডর্টমুন্ড।

অবশ্য ঘরের মাঠে ঘাম দিয়ে জ্বর ছেড়েছে লিভারপুলেরও। প্রতিপক্ষ অপেক্ষাকৃত দুর্বল গেঙ্ক হলেও কোন ঝুঁকি নেননি অলরেড বস ক্লপ। ৪-৩-৩ ফর্মেশনের সঙ্গে মূল একাদশেই সালাহ-চেম্বারলাইন-অরিগি।

তবে এদের কেউ নয় ১৪ মিনিটে উৎসবের মধ্যমণি মিডফিল্ডার জর্জিনিও। জটলার মধ্য থেকে তার দুর্দান্ত ফিনিশিং মুগ্ধ করেছে সমর্থকদের। ৪০ মিনিটে সামাট্ট্রার গোলে সমতায় থেকে বিরতিতে গেঙ্ক।

৫৩ মিনিটে চেম্বারলাইনের বুলেট গতির শট পূর্ণ তিন পয়েন্টের সঙ্গে লিভারপুলকে শীর্ষেই রাখলো ই গ্রুপের।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri