পেকুয়ায় মাকে কুপিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দিল প্রবাসী ছেলে

wmn-old.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(১২ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের পেকুয়ায় বৃদ্ধা মাকে কুপিয়ে জখম করল প্রবাসী ছেলে। চুলের মুঠি ধরে টানা হেচড়া করে গর্ভধারিণী মাকে বসতবাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ সময় অবাধ্য দুই প্রবাসীর ছেলে মাকে কুপিয়ে জখম করে। স্থানীয়রা বৃদ্ধ ওই নারীকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

১২ নভেম্বর (মঙ্গলবার) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলার টইটং ইউনিয়নের ধনিয়াকাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জখমী মহিলার নাম মোহছেনা বেগম (৫৫)। তিনি ওই এলাকার হাজী মোক্তার আহমদের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্র জানায়, মোক্তার আহমদের মেয়ে হালিমা বেগম ও ২ ভাই মোহাম্মদ এনাম এবং জুবাইরের মধ্যে বসতভিটার জায়গা নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। হালিমা বেগম পৈত্রিক বসতভিটায় ঘর জামাই থাকে। এ নিয়ে ২ ভাই ও বোনের মধ্যে বনিবনা চলছিল। ঘটনার দিন দুপুরে হাজী মোক্তার আহমদের ২ ছেলে এনাম ও জুবাইর বোনকে বসতভিটা থেকে তাড়িয়ে দিতে চেষ্টা চালায়।

এ সময় মা মোহছেনা বেগম ২ সন্তানের এমন কান্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এনাম ও জুবাইর দা নিয়ে মায়ের দিকে ধেয়ে আসে। এ সময় উত্তেজিত ২ সন্তান গর্ভধারিণী মাকে কুপিয়ে জখম করে। স্থানীয়রা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মা মোহছেনা বেগমের বাম হাতের কব্জিতে কুপিয়ে জখম করে।

মোহছেনা বেগম জানায়, আমার ২ ছেলে এনাম ও জুবাইর আমাকে কয়েকবার মারপিট করেছে। বিদেশ থেকে এ ২ জন কয়েক মাস আগে এসেছে। আমার মেয়েকে ভিটাছাড়া করতে তারা দা নিয়ে এসেছিল।

মেয়েকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারে। আমি প্রতিবাদ করায় তারা আমাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। আমাকেও বসতঘর থেকে বের করে দিতে মালামাল জমিতে ছুড়ে মারে। দু’পুত্র বধূ হামিদা বেগম, জেয়াসমিন আক্তারও আমাকে ও আমার মেয়ে হালিমাকে অত্যাচার করছে।

মোহছেনা বেগমের বড় ছেলে প্রবাসী জাবের আহমদের স্ত্রী ফরিদা বেগম জানায়, আমরা বৃদ্ধ শাশুড়ীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। ছেলেরা মাকে এমন নির্যাতন করে এখানে দেখেছি। আমি আমার স্বামীকে মুঠোফোনে বিষয়টি জানিয়েছি।

ছকুনতাজ নামক অপর পুত্রবধূ জানায়, ২ ছেলে ও তাদের স্ত্রীরা আমার শাশুড়ীর সাথে বর্বর আচরণ করেছে। তারা মারধর করেছে। হাতে দা দিয়ে কুপিয়েছে। এ সবের বিচার হওয়া উচিত।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজম জানায়, এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri