buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort

পেকুয়ায় লবণ ব্যবসায়ী অপহৃত

pekua-pic-apaharan-14-11-19.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(১৪ নভেম্বর) :: পেকুয়ায় এক লবণ ব্যবসায়ীকে অপহরণ করা হয়েছে বলে পারিবারিক সুত্র নিশ্চিত করেছে। মামলার হাজিরা দিতে কক্সবাজার ২য় যুগ্ম জেলা দায়রা জজ আদালতে গিয়েছিলেন। শুনানী শেষে ওই ব্যবসায়ী কোর্ট বিল্ডিং চত্তরে অবস্থান করছিলেন।

এ সময় অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে সিএনজিতে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান। গত ৪ দিন ধরে ওই ব্যক্তি কক্সবাজার জেলা শহরের কোর্ট বিল্ডিং চত্তর থেকে অপহৃত হওয়ার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে।

অপহৃত ব্যক্তির নাম মো: আলম প্রকাশ আলম (৩০)। তিনি উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের বদিউদ্দিনপাড়া গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে। পেশায় লবণ ব্যবসায়ী বলে স্থানীয়ভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। ১১ নভেম্বর দুপুর ১ টার দিকে কক্সবাজার শহরের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে ওই ব্যক্তি অপহৃত হয়েছেন বলে পারিবারিক সুত্র দাবী করেছে।

এ ব্যাপারে নিখোঁজ ব্যবসায়ী মো: আলম প্রকাশ আলমের পিতা রাজাখালী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডে বদিউদ্দিন পাড়া গ্রামের মৃত আমির উদ্দিনের ছেলে আমির হোসেন তার ছেলের সন্ধানসহ আইনী সহায়তা পেতে কক্সবাজার সদর থানার অফিসাার ইনচার্জ বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ পৌছায়। সাধারন ডায়েরী লিপিবদ্ধ করতে ওই লিখিত আবেদন পৌছায়। তবে কক্সবাজার মডেল থানার পুলিশ সেটি আমলে নেয়নি।

অপহৃত মো: আলমের পিতা আমির হোসেন জানায়, ১১ নভেম্বর সকালে আমার ছোট ছেলে মো: আলম প্রকাশ আলম কক্সবাজার শহরে পৌছতে বাড়ি থেকে বের হয়েছে। কক্সবাজার ২য় জেলা যুগ্ম দায়রা জজ আদালতে হাজিরা দেয়। দুপুর ১ টার দিকে কোর্ট থেকে বের হয়েছিল। সেখান থেকে ওই সময় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে ছেলে অপহৃত হয়েছে। আমার এক নাতীও ছিল। আলমকে কয়েকজন মিলে একটি সিএনজিতে তুলে অজ্ঞাত নিয়ে যাচ্ছে সে দৃশ্য প্রত্যক্ষদর্শী দেখেছে। ওই দিন থেকে আমার ছেলে আলম নিখোঁজ রয়েছে। তাকে খোঁজতে অনেক জায়গায় সন্ধান চেয়েছি। কোথাও খোঁজ মেলেনি। আমার ছেলেকে স্থানীয় কিছু বিএনপি-জামায়াত পন্থী সন্ত্রাসীরা তুলে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছিল। আমি ও আমার ছেলে আ’লীগ করি। ছেলে লবণ ব্যবসা করে।

মোহাম্মদ আলমের স্ত্রী তাসমিন জন্নাত কলি জানায়, আমার স্বামীকে অপহরণ করেছে। ৪ বছর আগে বিয়ে হয়েছে। তার্কিস নামক ৩ বছরের ছেলে আছে। সে বাবাকে না পেয়ে ব্যাকুল। আলমের মা পুতিলা বেগম জানায়, আমার ছেলেকে স্থানীয় কিছু দুষ্কৃতকারীরা কক্সবাজার থেকে অপহরণ করেছে।

ভাই আবুল কালাম জানায়, আমার ছোট ভাইকে আগে থেকে অপহরণে হুমকি দিয়ে আসছিল। কক্সবাজার থেকে হুমকি দাতারা নিয়ে গেছে।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri