কক্সবাজারের প্রত্নতাত্ত্বিক অনুসন্ধান উদ্বোধন কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গে

ramu-pic-kana-raja-15.11.19.jpg

সোয়েব সাঈদ,রামু(১৫ নভেম্বর) :: সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাধিন প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের উদ্যোগে জেলার ৪টি উপজেলায় শনিবার (১৬ নভেম্বর) শুরু হচ্ছে মাসব্যাপী প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ।

রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা এলাকায় ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিক গুহা চত্বরে এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে।

শনিবার বেলা ২টায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগের যুগ্ন সচিব জাকির হোসেন।

প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমান জানান, কক্সবাজার জেলার সদর, রামু, উখিয়া ও মহেশখালী উপজেলায় ২০১৯-২০ অর্থ বছরে প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের উদ্যোগে মাসব্যাপী প্রতœতাত্ত্বিক জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ পরিচালনা করা হবে।

তিনি আরো জানান, প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. হান্নান মিয়ার নির্দেশান অনুযায়ী এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রত্নতাত্ত্বিক এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজের অংশ হিসেবে শুক্রবার তাঁরা কক্সবাজার এসেছেন।

প্রতিনিধি দলে রয়েছেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো.আতাউর রহমান, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিল্ড অফিসার মো.শাহীন আলম, সদস্যদের মধ্যে সহকারী কাস্টোডিয়ান মো. হাফিজুর রহমান, গবেষণা সহকারি মো. ওমর ফারুক, সার্ভেয়ার চাইথোয়াই মারমা, পটারী রের্কডার ওমর ফারুক ও লক্ষণ দাস।

প্রতিনিধি দলটি শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) বিকালে রামুর ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিক চত্বরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানস্থল ও প্রস্তুতিমূলক কাজ পরিদর্শন করেন। এসময় বিশিষ্ট চিত্র শিল্পী তানভীর সরওয়ার রানা, ছড়াকার কামাল হোসেন, সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ, স্থানীয় বাসিন্দা কপিল উদ্দিন, মো. আবদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে গত ২৭ অক্টোবর রম্যভূমি রামু উপজেলার বিভিন্ন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমানের নেতৃত্বে প্রাক জরিপ দল।

ওইসময় দলটি রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নে ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিক এবং ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের অফিসেরচর এলাকার ঐতিহাসিক লামার পাড়া বৌদ্ধ বিহার ও ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের ডাক বাংলো পরিদর্শন করেন।

রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা জানান, ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিককে ঘিরে এখানে পর্যটনের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপের কারনে এর গুরুত্ব আরো বেড়ে যাবে। তিনি প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ ও অনুসন্ধান কাজে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri