পুঁজিবাজারে মন্দায় রাজস্ব আদায়েও ভাটা

dse-cse-down.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৫ নভেম্বর) :: পুঁজিবাজারে মন্দাবস্থার কারণে সরকারের রাজস্ব আদায় কমেছে। গত সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে সরকারের রাজস্ব কমেছে ২৮ শতাংশ। উল্লেখ্য, পুঁজিবাজার থেকে শেয়ার লেনদেন ও স্পন্সর-ডিরেক্টরদের শেয়ার বিক্রি থেকে সরকার রাজস্ব পায়।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, টানা মূল্যপতনে পুঁজিবাজারে লেনদেন কমে গেছে। বাজারকে গতিশীল করতে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হলেও কার্যত কোনো ফল আসছে না। উল্টো শেয়ার বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় প্রতিদিনই কমছে সূচক। অক্টোবরে ডিএসইর মাধ্যমে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ১১ কোটি ২৩ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বরে আদায় হয়েছিল ১৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। এক মাস ব্যবধানে সরকারের রাজস্ব কমেছে চার কোটি ৪৩ লাখ টাকা বা ২৮ শতাংশ।

টার্নওভার করে চলতি বছরের অক্টোবরে সরকার রাজস্ব পেয়েছে সাত কোটি দুই লাখ টাকা। আর উদ্যোক্তা পরিচালক বা প্লেসমেন্ট শেয়ার বিক্রি থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে চার কোটি ২১ লাখ টাকা। এ হিসাবে অক্টোবরে রাজস্ব আদায় হয়েছে ১১ কোটি ২৩ লাখ টাকা।

অন্যদিকে সেপ্টেম্বরে শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন থেকে আট কোটি ৪৯ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হয়। আর উদ্যোক্তা পরিচালক শেয়ার বিক্রি থেকে রাজস্ব আদায় হয় সাত কোটি ১৭ লাখ টাকা। এ হিসাবে সেপ্টেম্বরে এ খাত থেকে রাজস্ব আদায় হয় ১৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকা।

পতনবৃত্তে বাজার :

টানা মূল্যপতনের পর শেয়ার কেনার চাপ বাড়লেও আবারও পতনবৃত্তে ফিরেছে পুঁজিবাজার। চলতি সপ্তাহে আবারও দুই দিন পুঁজিবাজারে মূল্যপতন ঘটল। যদিও এই সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের সক্রিয়তা বাড়ায় শেয়ার কেনার চাপ বেড়েছিল। তবে বড় বিনিয়োগকারীরা আবারও বাজারে নিষ্ক্রিয় হওয়ায় পতন থামছে না। বিক্রির চাপ বাড়ায় সূচক কমার সঙ্গে লেনদেনও হ্রাস পায়।

১৪ নভেম্বর বৃহস্পতিবার প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) মূল্যসূচক কমেছে। লেনদেন কমার সঙ্গে বেশির ভাগ কম্পানির শেয়ারের দামও হ্রাস পেয়েছে।

ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩১৯ কোটি ৯ লাখ টাকা আর সূচক কমেছে ২৬ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা আর সূচক কমেছিল ৪২ পয়েন্ট। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৭১০ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক আট পয়েন্ট কমে এক হাজার ৬৩৮ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ছয় পয়েন্ট কমে এক হাজার ৮০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। দাম বেড়েছে ১৩২টির, কমেছে ১৫৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৯টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১১০ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৫২ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১২ কোটি ২৭ লাখ টাকা। ১৪ নভেম্বর লেনদেন হওয়া ২৪০টি কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ১৩৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri