কক্সবাজারের মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পে সন্ত্রাসী হামলায় কোরিয়ান ক্যাম্প ম্যানেজার আহত

matarbari-attack-pic.jpg

এম রমজান আলী,মহেশখালী(১৭ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ প্রকল্পে কোরিয়ান ক্যাম্প ম্যানেজারকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনার পর প্রকল্প এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত প্রকল্পে কর্মরত কর্মচারিরা।

আহত ক্যাম্প ম্যানেজার মো: সালাহদ্দিনকে গুরুতর অবস্থায় চকরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এই ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের বাংলা ক্যাম্পস্থ কুরিয়ান ক্যাম্পের পাশে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।

১৬ নভেম্বর রাত ১১ টার দিকে সন্ত্রাসীরা কুরিয়ান ক্যাম্প ম্যানেজার মো: সালাহউদ্দিনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে।

জানা যায়, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ প্রকল্পে দেশি বিদেশী চাকুরিজীবীদের খাবার সরবাহ করাসহ তাদের প্রয়োজনীয় অন্যান্য মালামাল সরবরাহ করে কসমস গ্রুপ। কসমস গ্রুপের কোরিয়ান ক্যাম্প ম্যানেজার মো: সালাহদ্দিনকে কিছু সন্ত্রাসী দীর্ঘদিন ধরে হুমকি ধুমকি দিয়ে আসছে।

অবশেষে ১৬ নভেম্বর রাত ১১ টার দিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে সালাহউদ্দিনকে হামলা করে। এতে তার মাথায় ও পিঠে মারাত্মক জখম হয়। পরে তার আত্মচিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

কসমস গ্রুপের লোকেশন ইনচার্জ ফখরুল জামান জানান, ৪০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশের এই মহা উন্নয়ন কর্মকান্ডের সাথে বিভিন্ন দেশি বিদেশী বিভিন্ন কোম্পানী ও গ্রুপ কাজ করছে। কিন্তু কিছু সন্ত্রাসীর কারনে উন্নয়ন কাজ ব্যহত হচ্ছে। এদের চিহ্নিত করে পুরো মাতারবাড়ি এলাকা সন্ত্রাসমুক্ত করা প্রয়োজন।

তা না হলে দেশিয় ব্যবসায়িক গ্রুপ ছাড়াও বিদেশী গ্রুপ ও বিদেশী কর্মরতদের জীবন হুমকির মুখে পড়বে।
কোরিয়ান ক্যাম্প এর সহ সুপারভাইজার ইমাম হোসেন জানান, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে এখানে চাকুরি করা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। সন্ত্রাসীদের দমন করা সম্ভব না হলে আগে যেমন অনেকে চাকুরি না করে এবং অনেক গ্রুপ কাজ না করে চলে গেছে সেভাবে অনেকে চলে যেতে পারেন।

আহত কোরিয়ান ক্যাম্প ম্যানেজার মো: সালাহউদ্দিন জানান, স্থানীয় সোহেলের নেতৃত্বে ৬/৭ জন সন্ত্রাসী হামলা করে। তার আগে একাধিকবার শাহাদত নামের এক ব্যক্তি হুমকি দেন প্রকল্প ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য।

এই ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাস কুমার চন্দ্র ধর জানান, স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ এ ঘটনার খোঁজ খবর নিয়েছেন। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri