কক্সবাজার সদর ইসলামাবাদে গৃহবধূকে নির্যাতন : আটক ২

ivtising-wmn.jpg

মোঃ রেজাউল করিম,ঈদগাঁও(১৯ নভেম্বর) :: কক্সবাজার সদর ইসলামাবাদে গৃহবধূকে বর্বর কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার এজাহার নামীয় দুই আসামি আটক হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই সঞ্জীব চন্দ্রনাথ সোমবার ১৮ নভেম্বর রাতে ভাবির দোকান এলাকা থেকে তাদের আটক করেন।

আটককৃতরা হচ্ছে ইউনিয়নের আউলিয়াবাদ এলাকার আব্দুস শুক্কুর ড্রাইভারের পুত্র নুরুল হাকিম (২৮ ) এবং সৈয়দ আলম ভেদুর পুত্র শহিদুল ইসলাম (২৫)।

মামলার এজাহারে তাদের ক্রমিক নং যথাক্রমে ১ও ৫ । এসআই সঞ্জিত চন্দ্রনাথ জানান, মামলার দুই জন আসামিকে আটক করা হয়েছে। পালিয়ে থাকা চার আসামিকে আটকের চেষ্টা চলছে।

এর মধ্যে রয়েছে একই এলাকার মৃত মোজাহের আহমদের পুত্র সৈয়দ আলম ভেদু (৫০), তার পুত্র আব্দুর রহমান ফকিরা (৩৫), রোহিঙ্গা নুরুল ইসলাম (২৭) এবং সৈয়দ আলম ভেদুর স্ত্রী রাজিয়া আক্তার প্রকাশ রাজু (৪৫)। মামলাটি দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার গৃহবধু উম্মে কুলসুম (৩৮)। তিনি ওই এলাকার সৈয়দুল হকের স্ত্রী।

এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, আসামি সৈয়দ আলম ভেদু ও তার পুত্র শহিদুল ইসলাম বিগত ৩ বছর পূর্বে ভিকটিমের কাছ থেকে নগদ তিন লক্ষ টাকা ধার নেয়। যা পরবর্তী দুই /তিন মাসের মধ্যে পরিশোধের অঙ্গীকারে একখানা চেক জমা দেয়। নির্ধারিত সময়ের পর উক্ত টাকা পরিশোধ করতে বললে নানা অজুহাতে তারা কালক্ষেপন করতে থাকে।

এক পর্যায়ে ঘটনার দিন ভিকটিম কে একা পেয়ে তার উপর অকথ্য নির্যাতন চালায় এবং হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় তার ঘরে রক্ষিত ছয় ভরি স্বর্ণালংকার সহ নগদ দেড় লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেয়। বর্তমানে তিনি জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সংঘটিত ঘটনায় তিনি ১৭ নভেম্বর কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের ও দুইজন আসামির আটকের খবরে ক্ষিপ্ত হয়ে আত্মগোপনে থাকা অন্য আসামিরা ভিকটিমের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ ও পরিবারের সদস্যদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ভিকটিমের নিকট আত্মীয়রা।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri