কক্সবাজারের ফুলছড়ি বনাঞ্চল থেকে বাচ্চাহাতির গলিত মরদেহ উদ্ধার

Chakaria-Picture-23-11-2019..jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(২৩ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নস্থ ফুলছড়ি রেঞ্জের আওতাধীন ফুলছড়ি বনবিটের বনাঞ্চলের গহীন অরন্য থেকে একটি বন্যহাতির বাচ্চার গলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে বনকর্মীরা।

শনিবার দুপুরে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী লোকজনের খবরের ভিত্তিতে বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছে বিটের বাইদ্যা ঝিরি নামক এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে।

স্থানীয় বনকর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সকালের দিকে কয়েকজন কাঠুরিয়া ফুলছড়ি রেঞ্জের বনাঞ্চলের ভেতরে কাঠ কুড়াতে যায়।

এ সময় বাইদ্যা ঝিরি এলাকায় একটি বাচ্চা হাতির মরদেহ মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে বনাঞ্চলে টহলরত বনকর্মীদের খবরটি জানায়। এরপর দুপুরে বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছে বাচ্চা হাতির মরদেহটি দেখে তাৎক্ষনিক ফুলছড়ি বনবিট কর্মকর্তা ও রেঞ্জ কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। পরে হাতির মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীস্থ ফুলছড়ি বনবিট কর্মকর্তা মো.আকরাম আলী। তিনি বলেন, খবর পেয়ে বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছে বাচ্চা হাতির ওই মরদেহটি উদ্ধার করেন। পরবর্তীতে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন মোস্তফিজুর রহমানকে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌছে হাতির মরদেহের সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়।

এরপর বিকালের দিকে বনাঞ্চলের ভেতরে গর্ত করে মরদেহটি পুঁতে ফেলা হয়েছে।

জানতে চাইলে ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন মোস্তফিজুর রহমান বলেন, বাচ্চাটি স্ত্রী হাতির ছিল। আনুমানিক বয়স দুই বছর হবে। মারা যাওয়ার পূর্বে পর্যন্ত দুগ্ধবাচ্চা ছিল ওই হাতি।

তিনি বলেন, সুরুতহাল রিপোর্ট করতে গেলে আশ পাশের এলাকায় দু:গন্ধে ছড়িয়ে পড়ে। সম্ভবত বাচ্চাটি তিন থেকে ৪ দিন পূর্বে মারা গেছে। তবে অসুস্থ জনিত অথবা রোগে আক্রান্ত হয়ে বাচ্চাটি মারাগেছে গেলে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

ফুলছড়ি বনবিট কর্মকর্তা মো. আকরাম আলী বলেন, গতকাল বিকালে ঘটনাস্থলে সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি শেষে হাতির বাচ্চাটি বনাঞ্চলের ভেতরে পুতে ফেলা হয়েছে। এরপর বিষয়টির আলোকে রাতে চকরিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরী রুজু করা হয়েছে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri